cplusbd

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে সাহিত্য সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে : ড. শিরীণ

চট্টগ্রাম বইমেলায় ২২ ফেব্রুয়ারি দিনব্যাপী বহুমাত্রিক আয়োজন

1st Image

সিপ্লাস ডেস্ক (২০১৯-০২-১৯ ০৯:৩২:০৬)

“অক্ষরে অমরতা” স্লোগানের পতাকাবাহী আন্তর্জাতিক সাহিত্য ও সমাজ কল্যাণমূলক সংগঠন ‘কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন’ এর উদ্যোগে এবং সমাজ, সংস্কৃতি, উন্নয়ন, মানবাধিকার, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তচিন্তার জবাবদিহিমূলক সংগঠন ‘আমরা করবো জয়’-এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ও বইমেলা পরিষদের সার্বিক সহযোগিতায় এম.এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়াম প্রাঙ্গণে অমর একুশে বইমেলা মঞ্চে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার দিনব্যাপী বিশেষ সাহিত্য সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হবে।

সম্মেলনে আগত অতিথিদের চাহিদা মাফিক ‘আনলিমিটেড চা’ পরিবেশন করবে সম্মেলনের হট বেভারেজ পার্টনার ইস্পাহানি টি লিমিটেড।

এছাড়া, আগত দর্শক-শ্রোতাদের জন্য ২ পর্বে বিভক্ত ৩ গ্রুপের তাৎক্ষণিক ক্যুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ২০ হাজার টাকার বই উপহার দেয়া হবে।

দিনব্যাপী আয়োজনে রয়েছে ক্যুইজ প্রতিযোগিতা, বংশীবাদন, একক সংগীত ও আবৃত্তি এবং আলোচনা সভা।

এছাড়া দু’পর্বে রয়েছে সারা দেশ থেকে আগত কবি লেখকদের স্বরচিত লেখা পাঠের আসর।

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে কর্মসূচি উপস্থাপনকালে সম্মেলনের চেয়ারম্যান ও চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সাহিত্য সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে উল্লেখ করে বলেন, আমাদের নিজেদের শক্তি অর্জন করতে হবে। পরে পৃথিবীর মানুষ আমাদের গণ্য করবে। বাংলা ভাষাকে পৃথিবীর কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ব্যস্ত হওয়ার দরকার নেই। প্রত্যেক লেখক ব্যক্তি ও সমাজের নানামাত্রিক জীবনাবিজ্ঞতাকে তুলে আনেন তাঁর লেখায়। আমাদের সাহিত্যিকদের হাতে সত্যিকারের মানবতাবাদী কালজয়ী সাহিত্য যদি সৃষ্টি হয়। আমরা যদি সমস্ত বাঙালির কাছে শিক্ষা পৌঁছে দিতে পারি তাহলে পৃথিবীর লোক এমনিতেই জানবে। আমরা যেমন ইংরেজি সাহিত্য, ফরাসি সাহিত্য আগ্রহ নিয়ে পড়ি, পড়েছি তেমনি আমাদের সাহিত্য হলে ওরাও পড়বে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম হাবিবী। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য সম্মেলনের কো-চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি কবি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, সংগঠনের আন্তর্জাতিক কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ সাদেক উজ জামান চৌধুরী, সংগঠনের বাংলাদেশ চ্যাপ্টার সভাপতি ও সম্মেলনের মহাসচিব লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি, চট্টগ্রাম জেলা সহ-সভাপতি করুণা আচার্য, চিত্রশিল্পী ও সাংবাদিক এস.এম আজিজুল কদির প্রমুখ।

আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকাল ৯.৩০ টায় ক্যুইজ প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে সম্মেলনের সূচনা ঘটবে। সকাল ১০টায় সাহিত্য মঞ্জুরীতে একুশে পদক প্রাপ্ত বাঁশীশিল্পী আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ওস্তাদ আজিজুল ইসলামের একক পরিবেশনা। সাড়ে ১০টায় সাহিত্য বন্দনায় খ্যাতিমান আবৃত্তিশিল্পী অ্যাডভোকেট মিলি চৌধুরীর একক পরিবেশনা এবং ১১টায় লোকগীতি শিল্পী উর্বশী চক্রবর্ত্তীর সূচনা সংগীত ও ভাষার গান।

যৌথভাবে সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন নগরীর দু’জন বয়োজ্যষ্ঠ কবি-সাংবাদিক-সাহিত্যিক অরুণ দাশগুপ্ত ও মাহবুবুল আলম।

প্রফেসর ড. শিরীণ আখতারের সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. আফসারুল আমিন এমপি।

প্রধান আলোচক থাকবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

বিশেষ অতিথি থাকবেন বইমেলা উদ্যাপন পরিষদ মহাসচিব ও চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা প্রফেসর সুমন বড়ুয়া, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ফজলুল হক, চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ, প্রফেসর মো. আবুল হাসান, সাংবাদিক-নাট্যজন প্রদীপ দেওয়ানজী, বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত সাহিত্যিক রাশেদ রউফ, শিশুসাহিত্যিক অরুণ শীল।

কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন বাংলাদেশ চ্যাপ্টার সভাপতি ও বিশেষ সাহিত্য সম্মেলন মহাসচিব লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির সঞ্চালনায় সূচনা বক্তব্য রাখবেন কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম হাবিবী। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবেন কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন আন্তর্জাতিক কো-অর্ডিনেটর মো. সাদেক চৌধুরী।

বরেণ্য লেখক-গবেষক প্রফেসর এওয়াইএমডি জাফরের সভাপতিত্বের দুপুর ১২টায় সম্মেলনে আগত কবি-সাহিত্যিকদের লেখা পাঠের আসর। বেলা ১.০০টা থেকে ২.৩০ টা পর্যন্ত পবিত্র জুমার নামাজ, দুপুরের খাবার এবং লেখকদের আড্ডার বিরতি। বেলা ২:৩০ মিনিটে ক্যুইজ প্রতিযোগিতা এবং ৩টায় একক সঙ্গীত আয়োজনে একুশে পদক প্রাপ্ত শিল্পী ফাতেমা তুজ জোহরার একক পরিবেশনা ও বিকেল ৪ টায় মুক্তিযোদ্ধা-সংগঠক-প্রকাশক মহিউদ্দিন শাহ আলম নিপুর সভাপতিত্বে লেখা পাঠের আসর।

বিকেল ৫টায় চট্টগ্রামের কবি-সাহিত্যিক প্রাবন্ধিক ও ছড়া শিল্পীদের কলম সাহিত্য সম্মাননা, শতকলম গ্রন্থ, সম্মেলন উপলক্ষে প্রকাশিত স্মারকের মোড়ক উন্মোচন এবং আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি থাকবেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম হাবিবীর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক থাকবেন বরেণ্য গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব ও দৈনিক জাগরণ সম্পাদক সাংবাদিক আবেদ খান। বিশেষ অতিথি থাকবেন বইমেলা উদ্যাপন পরিষদ আহ্বায়ক ও চসিক শিক্ষা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি নাজমুল হক ডিউক, দৈনিক প্রথম আলোর যুগ্ম বার্তা সম্পাদক কবি ওমর কায়সার, দৈনিক পূর্বকোণ সাহিত্য সম্পাদক কবি এজাজ ইউসুফী, বন্দর সরকারি কলেজ অধ্যক্ষ কবি সেলিনা শেলী, ইস্পাহানী টি লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার (টি মার্কেটিং) ওমর হান্নান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবেন সাহিত্য সম্মেলনের কো-চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি কবি নাজিমুদ্দীন শ্যামল।

সন্ধ্যা ৬ আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান আবৃত্তিশিল্পী ও গবেষক ডালিয়া বসু সাহার একক পরিবেশনা ‘সাহিত্য বন্দনা’। কলম সাহিত্য সম্মাননার জন্য মনোনীতরা হলেন মুক্তিযোদ্ধা, কবি ও প্রাবন্ধিক সাথী দাশ, কথাসাহিত্যিক অধ্যাপিকা ফেরদৌস আরা আলীম, কথাসাহিত্যিক দেবাশীষ ভট্টাচার্য, গল্পকার দিপালী ভট্টাচার্য, শিশু-সাহিত্যিক সাংবাদিক বিপুল বড়ুয়া, কবি-প্রাবন্ধিক ডা. জিললুর রহমান, শিশু সাহিত্যিক এমরান চৌধুরী, কবি-সাংবাদিক শুকলাল দাশ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক সাংবাদিক আহসানুল কবির রিটন এবং গল্পকার জাহেদ মোতালেব।