cplusbd

নিউজটি শেয়ার করুন

শিল্পকলা নির্বাচনে সহ-সভাপতি প্রার্থী চট্টগ্রামের রাজন

চট্টগ্রামকে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক রাজধানীতে রূপান্তর করতে চাই : রিজোয়ান রাজন

1st Image

সিপ্লাস প্রতিবেদক (২০১৮-০৭-১১ ০৯:৩৭:৩৪)

বাংলাদেশের মূকাভিনয় জগতে রিজোয়ান রাজন একটি অনন্য নাম। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও সুখ্যাতি লাভ করেছেন এই গুণী মূকাভিনয় শিল্পী। তরুণ এই মূকাভিনয় শিল্পী আগামী ২১ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য শিল্পকলা একাডেমির কার্য-নির্বাহী পর্ষদের নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে লড়বেন।
১৯৯৫ সালে তিনি মূকাভিনয়ে যাত্রা শুরু করেন। বাংলাদেশ মূকাভিনয় ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল পদে আসীন ছিলেন তিনি। রিজোয়ান রাজন দেশের পাশাপাশি ভারতের ইন্ডিয়ান মাইম থিয়েটার মহাসঙ্গের প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। ১৯৯৫ সালের ১লা বৈশাখ চট্টগ্রামের ডিসি হিলে মূকাভিনয়ের মধ্য দিয়ে প্যান্টোমাইম মুভমেন্টের যাত্রা শুরু হয়। সেই থেকে রিজোয়ান রাজনের মুকাভিনয়ে পথচলা । অার এই সংগঠনটি ২০১২ সালে ওয়ার্ল্ড মাইম কমিউনিটির সক্রিয় সদস্য হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। গত নয় বছর ধরে তিনি প্যান্টোমাইম নামের একটি ত্রৈমাসিক পত্রিকা প্রকাশ করছেন এবং তিনি পত্রিকাটির সম্পাদক হিসেবে আছেন। প্যান্টোমাইম মুভমেন্ট চল্লিশটির অধিক নকশা মূকাভিনয় প্রযোজনা করেছে যার সিংহভাগই নির্দেশনা দিয়েছেন রিজোয়ান রাজন। দীর্ঘ পথ চলার এই সময়ে তিনি জাতীয় পর্যায়ে একটি মূকাভিনয় স্কুল প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখছেন।
নির্বাচনে জিতলে শিল্পীদের জন্য কি কি করবেন এ প্রশ্নের উত্তরে রিজোয়ান রাজন সিপ্লাসকে বলেন, শিল্পকলা একাডেমির বাজেট আসে সরকারের কাছে থেকে। তাই সরাসরি শিল্পীদের জন্য কি করতে পারব সেটা আসলে বাজেটের উপরই নির্ভর করে। তবুও আমি যেহেতু চট্টগ্রামের ছেলে তাই নির্বাচিত হলে চট্টগ্রামের যে আলাদা স্বকীয় সংস্কৃতি যেমন সাম্পানওয়ালার গান, বলি খেলা, নৌকা বাইচ, কবিগান, হালদা ফাটা গানসহ এ প্রাচীন সংস্কৃতির উপাদানগুলো যাতে বিশ্ব দরবারে ছড়িয়ে পড়ে সে চেষ্টা করব। এই উপাদানগুলোকে পুঁজি করে চট্টগ্রামকে যেন বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক রাজধানীতে রূপান্তর করতে পারি সে চেষ্টাই সবসময় থাকবে।

1st Image