বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ক্ষমতাসীনদের টর্চারসেলে পরিণত হয়েছে

সিপ্লাস ডেস্ক
  • Update Time : সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৯, ১১:১৩ pm
  • ৮০ বার পড়া হয়েছে

বিএনপির সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা প্রকৌশলী বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মমভাবে আবরার হত্যার প্রসঙ্গ তুলে বলেছেন, দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠন ছাত্রলীগের টর্চারসেলে পরিণত হয়েছে। দেশে ভিন্নমত প্রচারের নূন্যতম স্বাধীনতা নাই। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তির বিপক্ষে বুয়েটের আবরার যখন বাংলাদেশের পক্ষে দাঁড়ায় তখন তাকে পিটিয়ে মারা হয়েছে। একই কারণে খুলনায় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য পদ হারিয়েছেন একজন। অর্থাৎ এখন কথা বলা যাবে না, যদি না এটি সরকারের পক্ষে যায়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ জাতীয় সংসদে বাতিল হওয়া জরুরি জন-গুরুত্বসম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ প্রস্তাবের (বিধি-৭১) পক্ষে বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী সংসদে উপস্থিত ছিলেন।

ব্যারিষ্টার রুমন আরো বলেন, নোংরা রাজনীতির চক্করে পড়ে মেধাবী অ-মেধাবী নির্বিশেষে ক্ষমতাসীন দলের অনেক ছাত্র নরপিচাশে পরিণত হয়েছে। আবরারকে নৃশংসভাবে মারার পাশাপাশি তারা মেসেঞ্জারে ছবি ট্যাগ করেছে, রাতের খাবার খেয়েছে ও বার্সেলোনার খেলা দেখেছে। সেখানে ছাত্রলীগের আধিপত্যের নামে চলে দানবীয় অত্যাচার।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন দলীয় কর্মী না প্রশাসক তা বোঝা যাচ্ছে না। সেখানকার ভিসি আবরার হত্যা ৩৮ ঘণ্টা পর সামনে আসেন। পুলিশের প্রটেকশন নিয়ে তিনি আবরারের বাড়ি কুষ্টিয়া জান। সেখানে যাওয়ার পর দুই মিনিটে দোয়া শেষ করার নির্দেশনা আসে। হামলা করা হয় আবরারের ভাই ও পরিবারের উপর। নৃশংস হত্যাকাণ্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসক কোনভাবে দায়সারা ব্যবস্থা গ্রহণ করে। ফলে মামলা করতে হয় আবরার এর বাবাকে। অথচ সেখানে যে প্রক্টর, প্রভোস্ট ও ছাত্রকল্যাণ সমিতির সভাপতি আছে তারা তাদের দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 cplusbd.net