সৌদিতে অমানবিক নির্যাতনে নিহত নারী গৃহকর্মী নাজমার লাশ দেশে নিতে চাই স্বজনরা

সৌদি আরব প্রতিনিধি
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯, ০৬:৫৯ pm
  • ৭৭ বার পড়া হয়েছে

পারিবারিক স্বচ্ছলতার তাগিদে সৌদি আরবে এসে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা গেলেন মানিকগঞ্জের নাজমা বেগম।

মৃত্যুর এক মাস পার হলেও তার মরদেহ দেশে নিতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

এমতাবস্থায় লাশটি দেশে নিয়ে প্রিয়জনের মুখটি শেষবারের মতো দেখার সুযোগ করে দিতে সৌদি-বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত ও সরকারের সহযোগীতা চেয়েছেন নাজমার স্বজনরা।

জানাযায়, আর্থিক সচ্ছলতা ফেরাতে স্থানীয় দালাল সিদ্দিকের মাধ্যমে প্রায় দুই লাখ টাকা দিয়ে ১০ মাস আগে সৌদি আরব পাড়ি জমান মানিকগঞ্জের নাজমা বেগম।

কোম্পানী ভিসার নামে প্রায় দুই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে দেশটিতে বাসা বাড়ির কাজ দেয় দালাল সিদ্দিক। এরপর থেকেই দিনের পর দিন নাজমার উপর চালানো হয় শারীরিক নির্যাতন।

টেলিফোনে স্বজনদের কাছে বার বার বাঁচার আকুতি জানালেও শেষ রক্ষা হয়নি এ বাংলাদেশি নারীর। গত ২ সেপ্টেম্বর দেশটিতে গৃহকর্তার নির্যাতনে মৃত্য হয় নাজমার।

মৃত্যুর এক মাস পার হলেও, তার মরদেহ দেশে নিতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

অন্যদিকে, নাজমা বেগমের লাশটি দেশে আনতে সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা রাহেলা রহমত উল্লাহ।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ইসলামনগর গ্রামের নাজমা বেগমের নিথর মরদেহটি বর্তমানে সৌদি আরবের আমির হাসপাতালের হিমঘরে পড়ে রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 cplusbd.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
Shares