নিউজটি শেয়ার করুন

হাটহাজারীতে সিটি সেন্টার ও এন জহুর শপিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত,দুই মাসের ভাড়া ১৬ লক্ষ টাকা মওকুফ

 মোঃ আলমগীর হোসেন,হাটহাজারী: করোনা ভাইরাসের কারণে হাটহাজারী লকডাউন থাকায় দীর্ঘদিন দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। এ কারণে প্রায় ৩৭৫টি দোকানের ভাড়া মওকুফ করে উদারতার দৃষ্টান্ত রাখলেন দুই মার্কেটের মালিক আলহাজ্ব মোঃ সরওয়ার মোরশেদ।

শনিবার (৯ এপ্রিল) এন জহুর শপিং সেন্টার এবং সিটি সেন্টারের মালিক সরওয়ার মোর্শেদ মার্কেটের দোকানদারদের সঙ্গে বৈঠক করে এ ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ছয় দফায় ৫২ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। এ সময়ের মধ্যে জনগণকে ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ছাড়া সব দোকান বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

হাটহাজারীর পৌরসভার কাঁচারী সড়কে অবস্থিত এন জহুর শপিং সেন্টার এবং সিটি সেন্টারের মালিক সিপ্লাসকে জানান, মানবিক দিক বিবেচনা করে দুই মার্কেটের ৩৭৫টি দোকানের এপ্রিল ও মে মাসের দোকান ভাড়া মওকুফ করা হয়েছে। ওই দুই মার্কেটের দোকানগুলো থেকে মাসিক ভাড়া আসে ৮ লক্ষ টাকা। দুই মাসের ভাড়া মোট ১৬ লক্ষ টাকা।

সিটি সেন্টার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন সিপ্লাসকে বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে গত ২৬ মার্চ থেকে সরকারি নির্দেশনা ও লকডাউনে থাকা মার্কেটের সব দোকান বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীরা মারাত্মকভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

বিষয়টি মানবিক বিবেচনায় রেখে এপ্রিল ও মে মাসের ভাড়া মওকুফ করে একটি অতুলনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন মার্কেটের মালিক সরওয়ার মোর্শেদ।