নিউজটি শেয়ার করুন

সাংসদের নির্দেশে মাতারবাড়ী রাজঘাটের বিধ্বস্থ বেড়ীবাঁধে মাটি দিয়ে পানি ঠেকালেন চেয়ারম্যান

মহেশখালী প্রতিনিধি: চলমান পূর্ণিমার জোয়ারের পানি ধাক্কা ঠেকাতে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিকের নির্দেশে মহেশখালী উপজেলা মাতারবাড়ী উত্তর রাজঘাটের ভাঙ্গা বেড়ীবাঁধে মাটি দিয়ে পানি ঠেকালেন চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ। এতে জোয়ারের পানি থেকে রক্ষা পেলেন উত্তর রাজঘাটের বহু দোকান ও বসত বাড়ী।

উত্তর রাজঘাটের স্থানীয় বাসিন্দা গিয়াস উদ্দীন, মনজুর আলম, আবুল কালামসহ অনেকে জানান, পূর্ণিমার জোয়ার শুরু হওয়ার সাথে সাথে উত্তর রাজঘাটের বিধ্বস্থ বেড়ীবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে গত ২৪ জুলাই (শনিবার) বহু দোকান ও বসত বাড়ী পানিতে সয়লাব হয়ে যায়।

বিষয়টি চেয়ারম্যানের দৃষ্টি গোচর হওয়ার পর স্থানীয় লোকজন নিয়ে বিধ্বস্থ এলাকা পরির্দশন করেন। উত্তর রাজঘাটের এই লন্ড-ভন্ড অবস্থা দেখে চেয়ারম্যান বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিককে মুঠোফোনে অবহিত করে।

ফলে ঐ বিধ্বস্থ বেড়ীবাঁধে মাটি দিয়ে জরুরী ভিত্তিত্বে জোয়ারের পানি ঠেকানোর জন্য নির্দেশ দেন এমপি। সাংসদের নির্দেশ পেয়ে চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ মজুরি ভিত্তিক কয়েক শত শ্রমিক দিয়ে ২৫ জুলাই (রবিবার) সকালে এ বিধ্বস্থ বাঁধ নির্মাণ করে দেয়ায় পুরো উত্তর রাজঘাটের শতাধিক বসত বাড়ী দোকান ঘর ও চিংড়ি প্রকল্প জোয়ারের পানি থেকে রক্ষা পেলেন।

মাটি কাটার কাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথে চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ বিকাল ৪ টার সময় ইউনিয়নের উত্তর রাজঘাটে গিয়ে শ্রমিকদের মজুরীর নগদ টাকা সাহাব উদ্দীন ও হাবিবুল্লাহ মাঝির হাতে তুলে দেন। এতে স্থানিয় লোকজন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি ও স্থানীয় চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহর আন্তরিকতার প্রশংসা করেছেন।

এ বিষয়ে মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন, সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিকের নির্দেশে মাতারবাড়ী উত্তর রাজঘাটের ভাঙ্গা বেড়ীবাঁধে মাটি দিয়ে পানি ঠেকালাম। এতে জনগণ স্বস্থি প্রকাশ করেছে। এতে রক্ষা পেয়েছে উত্তর রাজঘাটের বহু দোকান, বসত বাড়ী ও চিংড়ি প্রকল্প।