নিউজটি শেয়ার করুন

শাহজাহান সিকদার আবারো রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত

জগলুল হুদা, রাঙ্গুনিয়া: কড়া নিরাপত্তা ও প্রচুর ভোটারের উপস্থিতিতে রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. শাহজাহান সিকদার বিপুল ভোটে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি নৌকা প্রতিকে ১৪ হাজার ৮’শ ৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপির প্রার্থী হেলাল উদ্দিন শাহ পেয়েছেন দুই’শ ৮১ ভোট।

রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৫ হাজার ৭৯১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩ হাজার ৫১৯ জন এবং নারী ভোটার ১২ হাজার ২৭২ জন। মোট ভোটদান করেছেন ৫৮.৫০ শতাংশ।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। সকালবেলা ভোট শুরুর আধ ঘন্টার মধ্যেই পৌর সভার ১নং ওয়ার্ড মধ্য নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে বাগবিতন্ডা ও মারামারির ঘটনা ঘটে।

এর জের ধরে পাশের পাহাড়ে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলির ঘচটনা ঘটেছে। এতে সোহেল ও বাদশা নামের দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানা গেছে। তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তারা বহিরাগত বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তবে পুলিশ বলছে এধরণের কোন ঘটনা জানা নেই তাদের।

রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার আনোয়ার শামীম জানান, সকালবেলা ওই কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী জালাল উদ্দিন ও এছেল আহমদের মধ্যে হালকা গন্ডগোল হলেও পরে সুষ্ঠুভাবে ভোট সম্পন্ন হয়েছে।

কেউ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এমন অভিযোগ কেউ তাদের কাছে করেনি বলে জানান তিনি।

নির্বাচনে সাধারন কাউন্সিলর পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডে -জালাল উদ্দিন (উটপাখি) ১২৭৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী এছেল আহম্মদ (টেবিলল্যাম্প) পেয়েছেন ৩ ভোট। ২ নম্বর ওয়ার্ডে – নুরুল আবছার জসিম (টেবিল ল্যাম্প) ৩৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ইউসুফ রাজু (উটপাখি) পেয়েছেন ৩৭৭ ভোট। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে – জসিম উদ্দিন শাহ (উটপাখি) ৯০৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী শাহাদাত হোসেন সুমন (টেবিল ল্যাম্প) পেয়েছেন ৮৮৫ ভোট। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে – মো. নজরুল ইসলাম (পাঞ্জাবি) ৭৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মো. আইয়ুব (উটপাখি) পেয়েছেন ৫৫৫ ভোট। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল কাশেম (উটপাখি) ৮৩৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মোহাম্মদ সেলিম (ব্রিজ) পেয়েছেন ৬২০ ভোট। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে- অলি আহাম্মদ মাস্টার (উটপাখি) ৩৬৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী তারেকুল ইসলাম (ডালিম) পেয়েছেন ৩৫৮ ভোট। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে তারেকুল ইসলাম চৌধুরী (পাঞ্জাবি) ১২০১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মিনাজুর রহমান বেলাল (ব্ল্যাকবোর্ড) পেয়েছেন ৪৬৭ ভোট। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কফিল উদ্দিন সিকদার (ব্ল্যাকবোর্ড) পেয়েছেন ৭১৮ ভোট, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী আশিষ বড়ুয়া (টেবিল ল্যাম্প) পেয়েছেন ৬৫৮ ভোট। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ওমর ফারুক (উটপাখি) ৬৭৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, জসিম উদ্দিন (ডালিম) পেয়েছেন ৩৩৮ ভোট। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে- জেসমিন আক্তার ( টেলিফোন) ২৭৭৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী রুবি বেগম (আনারস) পেয়েছেন ২২৮০ ভোট। ৪, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে – ইয়াছমিন আক্তার (জবা ফুল) ২২১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী নূরজাহান বেগম (টেলিফোন) পেয়েছেন ১৫৫৪ ভোট। ৫, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডে দিলু আক্তার (জবাফুল) ১৯৫৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ইয়াছমিন আক্তার (টেলিফোন) পেয়েছেন ১৮৫১ ভোট।