নিউজটি শেয়ার করুন

লামায় জীপগাড়ি উল্টে নিহত ২, আহত ২

মোহাম্মদ ইলিয়াছ, লামা প্রতিনিধি: লামা উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের ডিসি রোড সংলগ্ন নাপিতার ঝিরি এলাকায় জীপগাড়ি উল্টে ২ জন নিহত ও ২ জন গুরুতর আহত হয়েছে।

আহতদের লামা হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৭ এপ্রিল ২০২১ইং) বিকাল ৪টায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন লামা উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সাপমারা ঝিরি এলাকার মোঃ শাহ আলমের ছেলে মোঃ মানিক (৩৫)। সে জীপগাড়ির হেলপার ছিল এবং অন্যজন হলেন গজালিয়া ইউনিয়নের গাইন্ধা পাড়ার চিংহ্লা প্রু মার্মার ছেলে সুইহ্লাচিং মার্মা (৩৮)।

আহতরা হলেন, গজালিয়া ইউনিয়নের গাইন্ধা পাড়ার অংশৈহ্লা মার্মার ছেলে অংচিংশে মার্মা (৩০), ও ধুংচাই মার্মার ছেলে থুইচাংপ্রু মার্মা (৩৫)।আহতরা সকলে জীপগাড়ির শ্রমিক।

লামা হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মনিরুজ্জামান মোহাম্মদ বলেন, মোঃ মানিক হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। আহতদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। অন্যদিকে সুইহ্লাচিং মার্মাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে রেফার করা হলে তার আত্মীয়স্বজন তাকে মালুমঘাট হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গাইন্ধা পাড়ার বাসিন্দা জয় মার্মা বলেন, খালি জীপটি মালামাল আনার জন্য লামা থেকে গজালিয়া যাচ্ছিল। যাত্রাপথে গজালিয়া বাজারের একটু আগে নাপিতার ঝিরি এলাকায় পাহাড় নামার সময় গাড়ির যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। রাস্তার উপরে দুই তিন বার উল্টে গেলে গাড়ির ড্রাইভার সহ সকলে আহত হয়।

জানা যায়, গাড়ির ড্রাইভার মোঃ এনাম দুর্ঘটনার পরপরই পালিয়ে গেছে। তার মাথায়ও আঘাত পেয়েছে বলে অন্যান্য আহতরা জানায়।

গাড়ি লাইসেন্স নাম্বার ঢাকা ল-২৩৩।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, লামা হাসপাতালে ও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বাহিরে নেয়া হয়েছে। নিহতের লাশ পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে দুর্ঘটনার কথা শুনে লামা হাসপাতালে উপস্থিত হয়, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল ও লামা পৌরসভার মেয়র মোঃ জহিরুল ইসলাম।