নিউজটি শেয়ার করুন

লকডাউনে রাঙ্গুনিয়ার কোথাও কড়াকড়ি আবার কোথাও ঢিলেঢালা ভাব

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি: লকডাউনে রাঙ্গুনিয়ার কোথাও কড়াকড়ি আবার কোথাও ঢিলেঢালা ভাব পরিলক্ষিত হয়েছে।

কাপ্তাই সড়ক কেন্দ্রিক এলাকাগুলোতে কড়াকড়িভাবে লকডাউন পালিত হলেও উপজেলার অন্যান্য স্থানে অনেকটা ঢিলেঢালা ভাবে পালিত হচ্ছে লকডাউন।

গত ৪ দিনে রাঙ্গুনিয়ার বিভিন্ন পুলিশ চেকপোস্টে সরকারি নির্দেশনা না মেনে যাত্রীবহন করায় ইজিবাইক, ট্রাক, সিএনজি অটোরিকশা, মোটরবাইক ও অটোরিকশা গাড়ি জব্দ করে অসংখ্য মামলা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অন্যদিকে বুধবার থেকে শনিবার পর্যন্ত সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাজিব চৌধুরী অভিযান চালিয়ে ১১টি মামলা দায়ের করে ৩৩শত টাকা এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদুর রহমান ১৫টি মামলা দায়ের করে ২১শত টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এরপরও রাঙ্গুনিয়ার কোথাও কড়াকড়ি এবং কোথাও ঢিলেঢালা ভাবে চলছে লকডাউন।

শনিবার সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকেই রাঙ্গুনিয়ার সড়কগুলোতে সাধারণ মানুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। তবে লকডাউনকে ঘিরে বন্ধ রয়েছে দোকানপাট, শপিংমলসহ সরকারি নির্ধারিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এছাড়া বন্ধ রয়েছে দূর পাল্লার যান চলাচল। তবে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও স্বল্পসংখ্যক সিএনজি অটোরিকশাসহ ছোট আকারের যান চলাচল করেছে।

পুলিশ ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় কঠোর লকডাউন চললেও কর্মকর্তারা চলে আসার পর আবারও ভিড় জমে যায়।

বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার চায়ের দোকান, কাঁচাবাজার ও রাস্তায় সাধারণ মানুষের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। শান্তিরহাট কাঁচাবাজারে সপ্তাহের নির্দিষ্ট বাজারের দিন উপচে পড়া মানুষের ভিড় ছিল। কাপ্তাই সড়ক থেকে শুরু করে সর্বত্রই ছিল স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মানুষের আনাগোনা।

এসময় প্রশাসন কিংবা বাজার সংশ্লিষ্ট কেউই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে কোন তৎপরতা দেখায়নি।

একইভাবে রাঙ্গুনিয়ার ১৫টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রতিটি সড়ক, অলিগলি, বিভিন্ন বাজারসহ সর্বত্রই ঢিলেঢালাভাবে লকডাউন পালিত হচ্ছে বলে জানা যায়।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মাহবুব মিল্কী বলেন, লকডাউনে সরকার ঘোষিত ১৩ দফা বাস্তবায়নে পুলিশ কঠোর অবস্থান রয়েছে। প্রত্যেকটি স্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের পক্ষ থেকে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।”

ইউএনও মো. মাসুদুর রহমান বলেন, বুধবার থেকেই সড়কে লকডাউন কার্যকরে মাঠে ছিল উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ। বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে এসব অভিযানের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এসময় করোনা সচেতনতায় জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে অনুরোধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, করোনামুক্ত রাঙ্গুনিয়া গড়তে লকডাউন মেনে চলার কোন বিকল্প নেই। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সবাইকে সরকারের দেয়া নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।”