নিউজটি শেয়ার করুন

রাঙামাটির কাউখালীতে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামা গ্রেফতার

রাঙামাটি প্রতিনিধি: আত্মীয়তার সূত্র ধরে পাড়াতো বোনের বাড়িতে আসা-যাওয়ার মাধ্যমে কিশোরী ভাগ্নিকে ধর্ষণ করার অভিযোগে ফারুক নামের এক বখাটেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার মধ্যরাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার বেতবুনিয়া ইউনিয়ন হতে তাকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কাউখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শহিদুল্যা-পিপিএম।

তিনি জানিয়েছেন, ধর্ষনের অভিযুক্ত ফারুক কিশোরীর সম্পর্কে মামা হয়। বেতবুনিয়ার একই এলাকায় পাশাপাড়ি বসবাস করে অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত। আত্মতীয়তার সুবাধে বোনের বাড়িতে প্রায়ই যাতায়ত ছিলো ফারুকের। প্রায়ই যাতায়াতের ফলে ফারুকের সাথে কিশোরীর (ভাগ্নীর) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সেই সুযোগে ফারুক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এবছরের জুন মাস থেকে বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে এই কিশোরীকে।

সর্বশেষ মামলা দায়েরের সপ্তাহ খানেক আগে ওই কিশোরীর পেটে ব্যাথার কথা বলিলে কিশোরীর মা প্যাটের আকার অস্বাভাবিক মনে হলে মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদে সে তার মাকে মামা কর্তৃক ধর্ষণের কথা জানায়।

পরবর্তীতে মামার লালসার শিকার কিশোরী ৫ মাসের গর্ভবতী বলে নিশ্চিত হয় তার পরিবার। পরে কাউখালী থানায় মামলা করলে রোববার তাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওসি।