নিউজটি শেয়ার করুন

রহমতগঞ্জে যাত্রামোহনের সেই বাড়ি রক্ষায় এবার আদালতে জেলা প্রশাসন

সিপ্লাস প্রতিবেদক: নগরীর রহমতগঞ্জে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত যাত্রামোহন সেনগুপ্তের বাড়ি রক্ষায় সেটি ভাঙার উপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে আবেদন করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

বুধবার চট্টগ্রামের প্রথম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে এ আবেদন জেলা প্রশাসনের দেওয়ানি মামলা শাখার পক্ষ থেকে করা হয়।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোমিনুর রহমান  বলেন, ভবন ভাঙার উপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে এ আবেদন করা হয়েছে।

নগরীর রহমতগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত ভবনটি ‘ঐতিহাসিক’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঐতিহাসিক এসব স্থাপনা রক্ষায় আরও বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (জিপি) নাজমুল আহসান খান বলেন, “আমরা আদালতে ওই বাড়িটি দখল বা ভাঙার ওপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করেছি। এর আগে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে আমাদের কাছে আবেদন করা হয়।”

তিনি বলেন, “এটা অর্পিত সম্পত্তি। এর মালিক জেলা প্রশাসক। জেলা প্রশাসন এটা ইজারা দেন। জেলা প্রশাসক বা ইজারা গ্রহিতা শিশু বাগ স্কুলকে পক্ষভুক্ত না করে আদালতকে ভুল তথ্য দিয়ে একটা ডিক্রি পক্ষটি নিয়েছিলেন। জানার পর নিষেধাজ্ঞা চেয়েছি।বৃহস্পতিবার একটা আদেশ পাওয়া যাবে।”

নগরীর রহমতগঞ্জে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত যাত্রামোহন সেনগুপ্তের সোমবার ভাঙার চেষ্টা করে একটি পক্ষ। এ সময় বুলডেজার দিয়ে ভবনের সামনের অংশ ভেঙে ফেলে।

মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত স্থানীয় ছাত্র-জনতাকে নিয়ে তা থামিয়ে দেন। তিনি বলেন, বাড়ির দখল নিতে আসা পক্ষটি জাল দলিল করে আাদলতের আদেশ এনেছিল।