নিউজটি শেয়ার করুন

যারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দেয় তারা ইসলামের শত্রু- শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল

যারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দেয় তারা ইসলামের শত্রু- শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল

সিপ্লাস প্রতিবেদক: শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম, কিন্তু মৌলবাদী গোষ্ঠী একধর্মের মানুষের সাথে অন্য ধর্মের মানুষের রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ বাধিয়ে আমাদের শান্তির ধর্ম ইসলাম-কে সারা পৃথিবীতে জঙ্গি গোষ্ঠী হিসেবে পরিচিত করতে চাই। তারা মূলত ধর্মের ভুল ও অপব্যাখ্যা দিয়ে এই সংঘাত সৃষ্টি করে। যারা পবিত্র ধর্ম ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে সংঘাত সৃষ্টি করে তারা ইসলামের শত্রু।

চকবাজারের ঐতিহ্যবাহী নবাব অলি বেগ খাঁ জামে মসজিদের নবগঠিত পরিচালনা কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে নবগঠিত কমিটির সভাপতি, স্থানীয় সাংসদ ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এসব কথা বলেন।

যারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দেয় তারা ইসলামের শত্রু- শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল

নওফেল বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন একজন খাঁটি ঈমানদার মুসলমান।তিনিই ছিলেন দেশে ইসলামের প্রকৃত পরিচর্যাকারী। পাকিস্তান আমলে হজ যাত্রীদের জন্য কোনো সরকারি অনুদানের ব্যবস্থা ছিল না। বঙ্গবন্ধুই স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশে প্রথম হজ যাত্রীদের জন্য সরকারি তহবিল থেকে অনুদানের ব্যবস্থা করেন এবং হজ ভ্রমণ কর বাতিল করেন। ইসলামের প্রচার ও প্রসারে বঙ্গবন্ধু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর সাড়ে ৩ বছর এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকারের শাসনামলে ইসলামের খেদমতে যে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা’র সরকার দেশের প্রতি জেলা ও উপজেলায় দৃষ্টিনন্দন ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণে করছে যেখানে নামাজ আদায়ের পাশাপাশি ইসলামি গবেষণা, সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চার করা হবে। বিশ্বে এই প্রথম কোনো সরকার একসঙ্গে ৫৬০টি মসজিদ নির্মাণ করছে। অতীতে বঙ্গবন্ধু এবং বর্তমানে তাঁর কন্যা শেখ হাসিনাই এইদেশে ইসলামের প্রকৃত হেফাজত করছেন।

যারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দেয় তারা ইসলামের শত্রু- শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল

উক্ত দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নবাব অলি বেগ খাঁ জামে মসজিদের নবগঠিত পরিচালনা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি এ.এম.এম সাইফুদ্দিন, সহ-সভাপতি মোঃ আনছারুল হক, মোঃ সাইফুল ইসলাম ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর আনোয়ার চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ মোঃ রফিকুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মোঃ খালেক জামাল, সহ কোষাধ্যক্ষ মোঃ নাজিম উদ্দিন, সদস্য মোঃ সেলিম, শাখাওয়াত হোসেন মানিক, আব্দুল্লাহ আল সগির, মাহমুদুল হক, মাওলানা নাসির উদ্দিন, শহিদুল আলম, মোঃ সেলিম উদ্দিন, শাহেদুল আজম শাকিল, শাহরুখ খান, আজম খান, শফিকুল ইসলাম, নেওয়াজ খান পারভেজ, কাজের আদেশ ইমরান, নজরুল ইসলাম মনু, মাহবুব আলম, মোস্তফা আহমেদ টিপু, শাহ মোহাম্মদ নাফিস ইমতিয়াজ, জিয়ারুল হোসাইন চৌধুরী, আশরাফ হোসাইন চৌধুরী, মাকসুদ জামিল মারুফ।

দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষা উপমন্ত্রী মসজিদের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ঘুরে দেখেন এবং কিভাবে কাজ আরও ত্বরান্বিত করা যায় সে বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।