নিউজটি শেয়ার করুন

মিয়ানমারের ইতিহাসে প্রথম জাতীয় ঐক্যের সরকার গঠন

সিপ্লাস ডেস্ক: মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে গণতন্ত্রকামীদের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। জান্তাবিরোধী আন্দোলনে অংশ নেয়া রাজনৈতিক দলগুলোর নেতারা জাতীয় ঐক্যের সরকার গঠন করেছেন। দেশটির ‌‘ভারপ্রাপ্ত ভাইস প্রেসিডেন্ট’ মান উইন খাইং থানকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

দেশটির সদ্য ক্ষমতাচ্যুত পার্লামেন্ট সদস্য, অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভের নেতা ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের উক্ত সরকারে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

জাতীয় ঐক্যের সরকারের ঘোষণা দিয়ে গণতান্ত্রিক কর্মী মিন কো নাইং ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘দয়া করে জনগণের সরকারকে স্বাগত জানান। জনগণের আকাঙ্ক্ষা ছিল জাতীয় ঐক্যের সরকারের।

১০ মিনিটের ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমরা সামরিক শাসনের মূলোৎপাটনের চেষ্টা করছি, তাই আমাদের বহু আত্মত্যাগ করতে হবে।

ক্ষমতাচ্যুত সংসদ কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত জাতিসংঘে মিয়ানমারের আইনপ্রণেতাদের দূত ড. সাশা বলেছেন, মিয়ানমারের ইতিহাসে এই প্রথম জাতীয় ঐক্যের সরকার গঠিত হলো।

গত পহেলা ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। এরপর থেকে দেশটিতে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। সেনাদের গুলি ও নির্যাতনে এ পর্যন্ত সাত শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে। এরই মধ্যে পলাতক রাজনৈতিক নেতারা ও সু চির দলের ক্ষমতাচ্যুত আইনপ্রণেতারা নিজেদের সংগঠিত করছেন।

সূত্র: রয়টার্স।