নিউজটি শেয়ার করুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের স্থাপনার নিরাপত্তায় ২৭ এলএমজি পোস্ট

সিপ্লাস ডেস্ক: নিরাপত্তা বেড়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশের। জেলা পুলিশের স্থাপনাগুলোর নিরাপত্তা জোরদারে ইতোমধ্যে ২৭টি স্থাপনায় বিশেষ নিরাপত্তা পোস্ট বা এলএমজি (লাইট মেশিনগান) পোস্ট বসানো হয়েছে।

এসব স্থাপনার মধ্যে রয়েছে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সব থানা ভবন, ফাঁড়ি ও ক্যাম্প।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. রইস উদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সম্প্রতি হেফাজতে ইসলাম দেশের বিভিন্ন স্থানের পাশাপাশি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের স্থাপনায় হামলা চালায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের স্থাপনাগুলোর নিয়মিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এর পাশাপাশি অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা হিসেবে অত্যাধুনিক ও ভারী অস্ত্র দিয়ে বিশেষ নিরাপত্তা পোস্ট বসানো হয়েছে। এগুলো পরিচালনার জন্য দক্ষ ও পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

দুপুর আড়াইটার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় গিয়ে পুলিশের একটি এলএমজি পোস্ট দেখা যায়। থানা ভবনের পুলিশ ক্লাবের ছাদের ওপর করা ওই এলএমজি পোস্টে দুইজন পুলিশ সদস্য এলএমজি নিয়ে অবস্থান করছেন। একইভাবে জেলার প্রতিটি থানাতেই এ ধরনের পোস্ট বসানো হচ্ছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতা করে, গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত হেফাজতে ইসলামের কর্মসূচির সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বেশ কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। রক্ষা পায়নি পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সদর মডেল থানার ২নং পুলিশ ফাঁড়ি ও খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা ভবনও। তিনদিনের ওই তাণ্ডবের ঘটনায় শতাধিক পুলিশ সদস্য আহত হন।