নিউজটি শেয়ার করুন

বিধিনিষেধে চলবে না দূরপাল্লার বাস-ট্রেন-লঞ্চ

সিপ্লাস ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চলমান বিধিনিষেধ ১৬ মে মধ্যরাত থেকে ২৩ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বেড়েছে।

রোববার (১৬ মে) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ঈদের পর দূরপাল্লার বাস ছাড়ার অনুমোদন দেয়নি সরকার। ফলে আগের মতোই বন্ধ থাকছে দূরপাল্লার গণপরিবহন চলাচল। তবে আগের মতোই জেলার মধ্যে গণপরিবহন চলাচল করবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আন্তঃজেলা বাস, যাত্রীবাহী ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল করবে কি না তা ১৭ থেকে ২৩ মে পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের পর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার।

সর্বশেষ ১৬ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল বিধিনিষেধের মেয়াদ। দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তার ওপর করোনা ভাইরাসের ভারতীয় ধরনের সন্ধান পাওয়ায় দেশে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরাও উদ্বিগ্ন।

যাত্রীবাহী ট্রেন, লঞ্চ চলবে না

এদিকে, বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিচালনা) শাহাদাত আলী সরকার বলেছেন, ১৭ মে থেকে ২৩ মে পর্যন্ত যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করবে না। তারপর হয়তো স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলের অনুমতি দিতে পারে সরকার। আমরা সরকারি আদেশ পেলে যেকোনো সময় যাত্রীবাহী ট্রেন পরিচালনার জন্য প্রস্ততি নিয়ে রেখেছি। রেলপথে যাত্রীবাহী ট্রেনগুলো পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হচ্ছে নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ কাজের অংশ হিসেবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক বলেন, গণপরিবহন হওয়ায় বিধিনিষেধ চলাকালে আগের মতোই লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে।