নিউজটি শেয়ার করুন

পটিয়ায় করোনা আক্রান্ত স্বাস্থ্যকর্মীকে পুড়িয়ে মারার হুমকি

সিপ্লাস প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক স্বাস্থ্যকর্মী ও তার পরিবারের সদস্যদের পেট্রল দিয়ে পুড়িয়ে মারার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে।

আক্রান্ত ব্যক্তি পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সী অ্যাটেনডেন্স পদে কর্মরত। গত শুক্রবার রাতে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা রির্পোটে পজেটিভ আসে। ঐদিন রাতেই উপজেলা প্রশাসন পটিয়া পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে গোবিন্দারখীল এলাকায় করোনা শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির বাড়ি লকডাউন করে।

পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাবেদ বলেন, আমাদের ওই সহকর্মীকে তার প্রতিবেশীরা পেট্রল দিয়ে পুড়িয়ে মারার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে আমাকে জানান। আমি ইউএনও এবং ওসিকে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জানিয়েছি। ওই ঘটনার পর বর্তমানে সব ঠিক আছে শুনেছি। আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবারের সাথে প্রতিবেশীর বিরোধও হয়তো থাকতে পারে। এরমধ্যে করোনা সংক্রমিত হয়েছে শুনতে পেরে তারা চেচাঁমেচি করেছে।

আক্রান্ত ব্যক্তির বাবা আবুল হোসাইন বলেন, করোনা শনাক্ত হওয়ার পর ছেলে বাড়িতে আছে। কোথাও বের পর্যন্ত হয়নি। কিন্তু শনিবার রাতে পাশের দুই বাড়ির লোকজন আমাদের বাড়ি সামনে এসে অকথ্য ভাষায় গালি, চিৎকার চেচাঁমেচি শুরু করে। এরপর তারা বলেন, এখানে করোনা রোগী থাকতে পারবে না। বাড়ি থেকে কেউ বের হলে পেট্রল দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়া হবে।

পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন বলেন, আমাদের কাছে কেউ এরকম কোন অভিযোগ করেনি, হুমকি দিয়েছে এ ধরনের তথ্যও পাইনি। করোনাকালে কেউ এধরনের হুমকি দিলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা আক্রান্তদের সার্বিক বিষয়ে খোঁজ খবর নিই। তবে এ ধরনের কেউ কিছু আমাদের বলেনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা বলেন, পৌরসভা মেয়র,কাউন্সিলর,থানা পুলিশ আমরা গতকাল এবং আজও আক্রান্ত স্বাস্থ্যকর্মীর বাড়িতে খাবার দিয়ে এসেছি প্রতিবেশীদেরও সহমর্মিতা দেখাতে অনুরোধ করেছি।