নিউজটি শেয়ার করুন

নগরীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, জরিমানা ও মাস্ক বিতরণ

সিপ্লাস প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ৩ জন বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান চালিয়ে সাড়ে ৯ হাজার টাকা জরিমানা এবং  ৩৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে। এ সময় পাঁচ হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

রবিবার (৪ এপ্রিল) নগরীর বিভিন্ন স্থানে এ অভিযান চালানো হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের পরিচালিত মোবাইল কোর্টে যাত্রী, পথচারীদের মাস্ক বিতরণ করা হয়।

বায়জিদ বোস্তামি মাজার এলাকা, মার্কেট, শের শাহ বাজার, বাকলিয়া, কাটগড় বাজার, পতেঙ্গা সৈকত, ইপিজেড, কর্ণফুলী ব্রিজ, কর্ণফুলী মার্কেটের ভেতর এবং এর সংলগ্ন রাস্তায়, দেওয়ানহাট এলাকায় প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ করা হয়।

বহাদ্দারহাট এলাকায় অভিযান চালায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা। এসময় তিনি অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের জন্য ৩ জন ও ৮ চালককে ২ হাজার ১০০ টাকা।

মেহেদীবাগ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত অভিযান করে দুইজনকে ৬০০ টাকা,

কাজীর দেউড়ি সংলগ্ন এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী অভিযান চালিয়ে মাস্ক না পরায় তিনজনকে ৫০০ টাকা ও অতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় দুই চালককে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

একে খান এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজা অভিযানে একজনকে ২০০ টাকা জরিমানা, লালখান বাজার এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস ৭ জনকে ৮৫০ টাকা, সিআরবি এবং সার্কিট হাউস সংলগ্ন স্টেডিয়াম মার্কেট, বিপণি বিতান ও গণপরিবহনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ অভিযান চালিয়ে একজনকে ১০০ টাকা, জিইসি এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্তের নেতৃত্বে অতিরিক্ত যাত্রী তোলায় তিনটি গণপরিবহনে ২ হাজার টাকা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে প্রবর্তক মোড় সংলগ্ন মিমি সুপার মার্কেট, মুন্নি প্লাজা, আফমি প্লাজা ও কল্লোল সুপার মার্কেটের দুইটি খাবার দোকানে খাবার সরবরাহকারীদের মাস্ক না থাকায় ৩০০ টাকা করে ৬০০ টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া বন্দর এলাকায় একটি মামলায় ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

আরেকটি অভিযানে একটি মামলায় দুইজনকে ৬০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।