নিউজটি শেয়ার করুন

গণপরিবহন চালুর কথা ভাবছে সরকার: ওবায়দুল কাদের

সিপ্লাস ডেস্ক: করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে গণপরিবহন চালুর দাবিতে সারা দেশে বিক্ষোভের ডাক দেওয়া মালিক-শ্রমিকদের ধৈর্য ধরারও আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঈদকে সামনে রেখে গণপরিবহন চালুর বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার।

শনিবার সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন শুক্রবার গণপরিবহন চালুর দাবিতে রোববার সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক দেয়

পরদিন পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, “লকডাউনের পর জনস্বার্থের কথা বিবেচনায় রেখে সরকার ঈদকে সামনে রেখে গণপরিবহন চালুর ব্যাপারে চিন্তা ভাবনা করছে।

“পরিবহন মালিক-শ্রমিক, আপনারা আন্দোলন, বিক্ষোভে না গিয়ে ধৈর্য ধরুন।”

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি রোধে চলমান কঠোর বিধিনিষেধ কয়েক দফায় সর্বশেষ ৫ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

এর মধ্যে দোকান-পাট, শপিংমল ও বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালু করা হলেও রেলপথে ও গণপরিবহনে যাত্রী পরিবহন বন্ধ রয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “সরকার ঈদ ও রমজানের কথা বিবেচনা করে এবং শ্রমজীবী মানুষ যারা দোকানপাট, শপিংমলে কাজ করেন তাদের কথা চিন্তা করে ইতিমধ্যেই লকডাউন শিথিল করেছে।”

ঈদের আগেই বিভিন্ন কলকারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতিও অনুরোধ জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, “করোনাকে পুঁজি করে যারা অপপ্রচারের বাণিজ্য করছে তারাই প্রকারান্তরে নানা অনিয়মের প্রশ্রয়দাতা।

“বিএনপি একদিকে অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলে অপরদিকে অনিয়ম, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সরকার ব্যবস্থা নিলে বলে, ‘বিরোধী দলকে দমন করছে’।”