নিউজটি শেয়ার করুন

করোনা সনাক্ত গার্মেন্টস কর্মীর বাড়ী লকডাউন ফটিকছড়িতে!

আনোয়ার হোসেন ফরিদ, ফটিকছড়ি: করোনায় আক্রান্ত হিসেবে পজেটিভ হওয়া জরিনা বেগম নামে এক গার্মেন্টস কর্মীর ফটিকছড়ি’র বাড়ী লকডাউন করেছে প্রশাসন। এ নিয়ে পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

জানা যায়, ফটিকছড়ি’র বাগানবাজার ইউপি’র পূর্ব হলদিয়া গ্রামের হাফিজ উল্যাহর কন্যা জরিনা বেগম (২৬) চট্টগ্রাম শহরের একটা গার্মেন্টসে চারুরী করে এবং চট্টগ্রামের সাগরিকা এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। বাসায় অসুস্থতা নিয়ে ৩ মে সন্দেহভাজন কোভিট-১৯ টেস্ট করায় এবং সেদিনই নমুনা দিয়ে জরিনা তার নিজ বাড়ি ফটিকছড়ি’র বাগানবাজারের বাড়ীতে চলে যায়।

এরপর গত (৮ মে ) বৃহস্পতিবার তার করোনা টেস্ট পজিটিভ আসে। সে ফটিকছড়িতে আসার পরও আলাদাভাবে বসবাস করছে বলে জানা গেছে। তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৪ জন।

ইতোমধ্যে খবর পেয়ে প্রশাসন তার বাড়ী লকডাউন ঘোষণা করে লাল পতাকা উড়িয়ে দিয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সায়েদুল আরেফিন বলেন করোনায় আক্রান্ত জরিনা বেগম করোনা টেস্ট করার পর থেকেই হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন। বাড়ি লকডাউন করাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। মহিলার অবস্থা স্বাভাবিক ও সুস্থ রয়েছে। হাসপাতালে ট্রান্সফারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

খবর পেয়ে জরিনার বাড়ীতে স্থানীয় এমপি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এক মাসের খাদ্য সামগ্রী উপহার পাঠিয়েছেন পুলিশের মাধ্যমে।

ভূজপুর থানার ওসি শেখ আব্দুল্লাহ উপহার সামগ্রী সমূহ করোনা সনাক্ত জরিনার বাড়ীতে পৌঁছে দেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য-ফটিকছড়িতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ জন। এর আগে ফটিকছড়িতে একজন ডাক্তার করোনা পজেটিভ হলেও পরবর্তীতে তিনি সুস্থ হয়ে যান। তার বাড়ী ছিল সাতকানিয়ায়। এবার চট্টগ্রাম শহরে সনাক্ত হলো ফটিকছড়ি’র কন্যা জরিনা।