নিউজটি শেয়ার করুন

করোনা ভ্যাকসিন জটিলতায় প্রবাসীদের বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত!

করোনা ভ্যাকসিন জটিলতায় প্রবাসীদের বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত!
সিপ্লাস প্রতিবেদক: করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে দেশে থাকা প্রবাসীরা বড় জটিলতায় পড়েছেন। যেসব দেশে এখন প্রবাসীরা যেতে পারছেন সেখানে ভ্যাকসিন সনদ নিয়ে যেতে হচ্ছে।
সারাদেশে চীনের দেয়া সিনোফার্মের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রমে অগ্রাধিকারের তালিকায় প্রবাসীদের রাখা হলেও তারা সংশ্লিষ্ট টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে টিকা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।
সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গিয়েও কোন প্রক্রিয়ায় তারা টিকা নিতে পারবেন তার কোন সঠিক নির্দেশনা না পাওয়ায় প্রবাসীরা বিপাকে।
ভুক্তভোগী অসংখ্য প্রবাসী সিপ্লাস কার্যালয়ে এসে জানান, সিনোফার্মের টিকাদান কার্যক্রমে অগ্রাধিকারের তালিকায় প্রবাসীদের রাখা হয়েছে। অথচ এ কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করা যাচ্ছে না। টিকা কেন্দ্র থেকে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে যোগাযোগ করার জন্য বলা হচ্ছে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ে গেলে তারা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। সেখানে গেলে টিকার বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগের বলে উল্লেখ করা হলেও করণীয় সম্পর্কে তাদের কোন নির্দেশনা পাওয়া যায়নি। এমন পরিস্থিতির মধ্যে অসংখ্য প্রবাসীরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
তারা আরো জানান, টিকা গ্রহণের জন্য সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। বর্তমানে এই অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন বন্ধ রয়েছে। তাছাড়া রেজিস্ট্রেশন করার জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র বাধ্যতামূলক। কিন্তু বেশির ভাগ প্রবাসীর জাতীয় পরিচয় পত্র নেই। সে বিবেচনায় প্রবাসীদের জন্য পাসপোর্ট অথবা অন্য কোন বিকল্প ব্যবস্থা না রাখা বড় আরেক জটিলতা। দীর্ঘদিন বিভিন্ন দেশের সাথে বিমান যোগাযোগ বন্ধ থাকায় অনেক প্রবাসীর ভিসার মেয়াদ ইতিমধ্যে শেষ। অনেকে দেশে একটানা ৬ মাসের বেশি অবস্থান করায় বিদেশ গমনে বাধা হয়ে দাড়িয়েছে। অনেকের বিমানের টিকেটের মেয়াদও শেষ হয়ে গেছে। এভাবে আরো নানা জটিলতায় প্রবাসীরা চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে। ২৩ জুন থেকে বাংলাদেশ থেকে আমিরাতে ফ্লাইট চালুর কথা রয়েছে। জরুরী ভিত্তিতে প্রবাসীদের সহজ উপায়ে টিকা গ্রহণের ব্যবস্থা করা না গেলে অসংখ্য প্রবাসীর জীবন ধ্বংস হয়ে পড়বে। এতে দেশও বিরাট ক্ষতির সম্মুখিন হবে।
এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীরা মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান। তারা লাখ লাখ প্রবাসীর এ করুন দশা থেকে মুক্তির জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের চট্টগ্রাম অফিসে তাদেরকে যোগাযোগ করতে হবে। সেখানে নাম এন্ট্রি করে তারা সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। এরপর তারা টিকা গ্রহন করতে পারবেন। টিকার ক্ষেত্রে প্রবাসীদের অগ্রাধিকার থাকলেও তাদেরকে একটা প্রক্রিয়ায় আসতে হবে। এ ক্ষেত্রে কিছুটা জটিলতা রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।