নিউজটি শেয়ার করুন

করোনা জয় করে কাজে ফিরলেন সিপ্লাস টিভির এডিটর ইন চীফ আলমগীর অপু

সিপ্লাস প্রতিবেদক: করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পরও দীর্ঘদিন বাসায় কোয়ারেন্টিন শেষে

কর্মস্থলে ফিরেছেন সিপ্লাস টিভির এডিটর ইন চীফ আলমগীর অপু।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) সন্ধ্যায় তিনি অফিসে আসার পর সিপ্লাস পরিবারের সদস্যরা তাঁকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

এ সময় তিনি সবার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘প্রায় দুমাস পরে আমার প্রিয় অফিসে সহকর্মীদের কাছে ফিরে এলাম। আল্লাহ আবার নতুন জীবন দিয়েছেন, কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। আলহামদুলিল্লাহ। সামনের দিনগুলোতে যেন ভালো কাজে সময় ব্যয় করতে পারি, আল্লাহ যেন সেই সুযোগ করে দেয় , সবাই দোয়া করবেন।’

কাঁশি ও জ্বর অনুভূত হওয়ায় গত ১৮ মে থেকে আলমগীর অপু বাসায় সেলফ কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। এরপর ২১ মে থেকে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী এন্টিবায়োটিক খাওয়া শুরু করেন। এতে উপসর্গ কমে আসলেও ২৬ মে কৌতুহলবশত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। ২৯ মে নমুনার প্রকাশিত ফলাফলে করোনা পজিটিভ আসে।

এরপরেও বাসায় থেকে চিকিৎসা নিতে চাইলে (৩০ মে) তার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে আসলে তাকে তড়িঘড়ি করে আন্দরকিল্লাহ চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করাতে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে ৩-৪ ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পর অবস্থা সংকটাপন্ন ও নানাবিধ বিষয় বিবেচনায় তড়িৎ গতিতে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে কেবিনে ভর্তি করা হয়। সেখানে টানা চিকিৎসা শেষ তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে গেলো ৭ জুন নমুনা দিয়ে তিনি বাসায় আইসোলেটেড হন। ৬ দিন পর রেজাল্ট নেগেটিভ আসলেও তিনি সহকর্মীদের অধিকতর নিরাপত্তার স্বার্থে বাসায় কোয়ারেন্টিন থাকার পর মঙ্গলবার (৩০ জুন) সন্ধ্যায় কর্মস্থলে ফিরে আসেন।

তার অনুপস্থিতিতে সকল দর্শক ও সকল শুভ্যানুধ্যায়ীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সিপ্লাস টিভির এডিটর ইন চিফ আলমগীর অপু বলেন, ‘আমার জন্য যারা দোয়া করেছেন এবং শুভ কামনা জানিয়েছেন সকলের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার সুস্থ হয়ে উঠার পেছনে আমার শক্ত মনোবল এবং সবার উৎসাহ সত্যিকার অর্থে কার্যকরী ভূমিকা রেখেছে। আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে সবার জন্য দোয়া করছি।’

সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন,  ‘করোনা হলেই ভেঙে পড়বেন না। এটি কোনো মরণঘাতি ব্যাধি নয়। মনোবল শক্ত রেখে মোকাবেলা করুন।’