নিউজটি শেয়ার করুন

কক্সবাজার বায়তুশ শরফ মসজিদের খতিবের জানাজা সম্পন্ন

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জামে মসজিদের সাবেক খতিব এবং কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা তাহেরুল ইসলামের নামাজে জানাজা মসজিদ মাঠ প্রাঙ্গণে সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) বাদে আসর জানাযা শেষে মরহুমকে বইল্লাপাড়া কবরস্থানে চির সমাহিত করা হয়। নামাজে জানাজায় হাজারো শোকাহত মানুষের ঢল নামে। প্রিয় হুজুরের ইন্তেকালের খবর পেয়ে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসে নানান শ্রেণী পেশার মানুষ। একনজরে শেষ বারের মতো সবাই মরহুমের মরদেহ দেখতে ভীড় করেন। জানাজার আগে শোকাহত মানুষকে সমবেদনা জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহা পরিচালক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব মাওলানা মাহমুদুল হক, মাওলানা আনোয়ারুল ইসলাম ও মরহুমের বড় ছেলে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মাহবুবুর রহমান, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নজিবুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, বড় বাজার জামে মসজিদের পেশ ইমাম রফিক বিন সিদ্দিক, সাবেক পৌর কমিশনার আবু জাফর সিদ্দিকী, ওমর ফারুকসহ শোকাহত হাজারো মানুষ।

কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহা পরিচালক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম বলেন, আলহাজ্ব মাওলানা তাহেরুল ইসলাম দীর্ঘ ৪৫ বছর ধরে বায়তুশ শরফের খেদমতে নিয়োজিত ছিলেন। তাঁর হাত ধরে জেলাব্যাপী বায়তুশ শরফের প্রসারতা বাড়ে। তিনি আজীবন তাঁর মহৎ কর্মে আমাদের মাঝে বেচে থাকবেন। বর্তমান বায়তুশ শরফে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) সকাল ৯.১৫টায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এই আলেম ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। তিনি সর্বসাধারণের কাছে জিকিরের ইমাম হুজুর হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

এদিকে এই আলেমে দ্বীনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, সাবেক সাংসদ লুৎফর রহমান কাজল, আনজুমানে ইত্তেহাদ, সাংবাদিক সংসদ কক্সবাজার, রিপোর্টার্স ইউনিটি কক্সবাজার, দৈনিক আজকের কক্সবাজার বার্তা পরিবার, ঈদগাঁও থানা প্রেসক্লাব, সিবিএন পরিবারসহ বিভিন্ন ধর্মীয়, রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ।