নিউজটি শেয়ার করুন

কক্সবাজারে ছুরিকাঘাতে এনজিও কর্মী খুন,ঘাতক আটক

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার পৌরসভার ১নাম্বার ওয়ার্ডের ফদনার ডেইল ( পূর্ব কুতুবদিয়াপাড়ায়) এলাকায় ছুরিকাঘাতে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার(১৯ ফেব্রুয়ারী) দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঘাতক আবদুল হাফিজের স্ত্রীকে নির্যাতনের প্রতিবাদ করতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত যুবকের নাম নজির আহমদ মনু (২৮)। তিনি ওই এলাকার আবদু শুক্কুরের ছেলে ও দুই সন্তানের জনক। তিনি একটি এনজিওর অধীনে রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে চাকুরী করতেন বলে জানা গেছে।

পুলিশ ঘাতক আবদুল হাফিজকে গ্রেফতার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শি ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার পৌরসভার ১নাম্বার ওয়ার্ডের ফদনার ডেইল ( পূর্ব কুতুবদিয়াপাড়ায়) এলাকার সোলতান আহমদের ছেলে আবদুল হাফিজ প্রতিদিন বাসায় এসে তার স্ত্রীক বেদম নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। তার স্ত্রীকে অত্যাচার ও চেঁচামেচিতে আশপাশের লোকজন অতিষ্ঠে রাত যাপন করতো। একই কায়দায় ঘটনার দিন শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে ১২ টায় আবদুল হাফিজ বাসায় এসে তার স্ত্রীকে পেটানো শুরু করে। তার স্ত্রীর চিৎকারে পাশের বাড়ির এনজিও কর্মী নজির আহমদ মনু ঘটনাস্থলে যান।

স্ত্রীকে না পেটানোর জন্য স্বামী হাফিজকে নিষেধ করায় ক্ষুদ্ধ হয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে নজির আহমদ মনুকে পেটে ছুরিকাঘাত করে। এতে মনুর প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়।

পরে মনুর আত্মীয় স্বজন তাকে দ্রুত কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ মনুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘাতক আবদুল হাফিজকে আটক করেছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার এস আই সাইদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘাতক হাফিজকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং ঘটনার ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।