নিউজটি শেয়ার করুন

অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হলো ভারতীয় ভিসা সেন্টার

সিপ্লাস ডেস্ক: করোনা সংক্রমণ রোধে ১ জুলাই সকাল ছয়টা থেকে ৭ জুলাই মধ্যরাত পর্যন্ত দেশে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এ প‌রি‌প্রেক্ষি‌তে ভারতীয় ভিসা সেন্টারগু‌লো অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হ‌য়ে‌ছে।

বুধবার (৩০ জুন) ঢাকার ভারতীয় হাইক‌মিশন তা‌দের ভে‌রিফা‌য়েড ফেসবু‌কে এক বার্তায় এ তথ‌্য জা‌নি‌য়ে‌ছে।

হাইক‌মিশন জানায়, বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ঘোষিত লকডাউনের (বিধিনিষেধ) পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের সব ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র ১ জুলাই থেকে পরবর্তী বিজ্ঞপ্তি না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি ভ্রমণের আবেদনসমূহ লকডাউনের সময়ও বিবেচিত হবে।

জরুরি ভ্রমণ বিশেষ করে চিকিৎসা সংক্রান্ত ভ্রমণের জন্য যেকোনো তথ্য জানতে info@ivacbd.com-ইমেইল এবং ০৯৬১২৩৩৩৬৬৬ ও ০৯৬১৪৩৩৩৬৬৬- দুটি নম্বরে যোগা‌যো‌গের অনু‌রোধ ক‌রে‌ছে হাইক‌মিশন।

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের স্থল সীমান্ত বন্ধ থাকলেও ভারতীয় ভিসা সেন্টারগুলো প্রায় মাসখানেক ধরে ভ্রমণ ভিসা ব্যতীত সব ধরনের ভিসার আবেদন গ্রহণের কার্যক্রম চলমান রেখেছে। তবে সীমান্তবর্তী যেসব জেলায় কঠোর লকডাউনে রয়েছে, সেসব জায়গায় ভারতীয় ভিসা সেন্টারগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে।

গত ২৬ এপ্রিল ভারতের সঙ্গে ১৪ দিনের জন্য সব ধরনের স্থলসীমান্ত বন্ধ করে বাংলাদেশ। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত দফায় দফায় স্থলসীমান্ত বন্ধের মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে। সর্বশেষ সোমবার (২৮ জুন) পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় ভারতের সঙ্গে আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত স্থলসীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ভারতীয় স্টেট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশে ১৫টি ভিসা আবেদনপত্র কেন্দ্র (আইভ্যাক) আছে। সেগুলো ঢাকা (যমুনা ফিউচার পার্ক), যশোর, খুলনা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর, ঠাকুরগাঁও, সাতক্ষীরা, বগুড়া, নোয়াখালী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও কুমিল্লায় অবস্থিত। সেন্টারগুলোর মাধ্যমে বিজনেস, কনফারেন্স, কূটনৈতিক, চাকরি, জরুরি, এন্ট্রি, সাংবাদিক, মেডিকেল, মিশনারি, দুই মাসের মধ্যে পুনঃপ্রবেশ, গবেষণা, শিক্ষার্থী, পর্যটক ও ট্রানজিট ক্যাটাগরিতে ভিসা দেয় ভারত।