নিউজটি শেয়ার করুন

জ্যাক মা’র সহায়তা আসছে রোববার

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় চীনের আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা’র পূর্ব ঘোষিত সহায়তা দেশে আসছে রোববার (২৯ মার্চ)। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ২৯ মার্চ আলিবাবার পক্ষ থেকে দেশে আসছে ৩০ হাজার কিট ও ৩ লাখ মাস্ক।

এর আগে এক টুইটে জ্যাক মা এক টুইটে বলেন, ১৮ লাখ মাস্ক, ২ লাখ ১০ হাজার কোভিড-১৯ টেস্ট কিট, ৩৬ হাজার প্রতিরক্ষামূলক পোশাক, ভেন্টিলেটর, ফোরহেড থার্মোমিটার এবং অন্যান্য চিকিৎসা এবং মহামারী প্রতিরোধের সরঞ্জাম সরবরাহ করা হবে। বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, কম্বোডিয়া, লাওস, মালদ্বীপ, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা এ সহায়তা পাবে।

ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আমাদের বিশেষজ্ঞদের চাহিদা আছে। তবে বাংলাদেশে যৌক্তিক সময়ের মধ্যেই আসবে। তাছাড়া বিশেষজ্ঞ দল গঠন, তাদের প্রস্তুতি ও তাদের আসা ও কাজ করার প্রস্তুতির ব্যাপার রয়েছে।

এসময় তিনি আরও বলেন, চীনের মতো বাংলাদেশে দ্রুত হাসপাতাল তৈরি করে দেয়ার বিষয়টি বিবেচনায় রাখলাম এবং অবশ্যই আমরা সহযোগিতা করব।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৪৪ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন পাঁচজন, সুস্থ হয়েছেন ১১ জন এবং চিকিৎসাধীন ২৮ জন।

এদিকে, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এখন পর্যন্ত ২১ হাজার ২০০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। অন্যদিকে এ ভাইরাস যাদের শরীরে শনাক্ত হয়েছে তাদের ১ লাখ ১৪ হাজার ২১৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এছাড়া ভাইরাসটি মোট শনাক্ত হয়েছে ৪ লাখ ৬৮ হাজার ৯০৫ জনের শরীরে।

বর্তমানে ৩ লাখ ৩৩ হাজার ৪৮৭ জনের শরীরে এ ভাইরাসের উপস্থিতি রয়েছে। চিকিৎসাধীন এসব মানুষের মধ্যে ৩ লাখ ১৮ হাজার ৬৯৫ জনের অবস্থা স্থিতিশীল এবং ১৪ হাজার ৭৯২ জনের অবস্থা গুরুতর।

ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ২৮৫ জন এবং মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ২৮৭ জন। দেশটিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭ জন এবং নতুন মৃতের সংখ্যা ছয়।

ভাইরাসটিতে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। সেখানে মারা গেছেন ৭ হাজার ৫০৩ জন। এদের মধ্যে ৬৮৩ জন মারা গেছেন গেল ২৪ ঘণ্টায়। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪ হাজার ৩৮৬ জন।