নিউজটি শেয়ার করুন

ভোটের যুদ্ধে মৈত্রীর হাসি নিমিষেই ম্লান

খোরশেদুল আলম শামীম: প্রচারণায় পরস্পরের অভিযোগের তীর ছুড়েছে নিরন্তর। তবে আসল ‘যুদ্ধ’ ভোটকেন্দ্রে দু’জন দু’জনকে বেঁধে নিয়েছেন মৈত্রীর আলিঙ্গণে। মুখে ছিল দরাজ হাসি।

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় ভোট গ্রহণ শুরুর পর নগরে এখলাছুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে আসেন বিএনপি’র প্রার্থী আবু সুফিয়ান। এসময় সেখানে তার সঙ্গে বেশ ক’জন নেতা-কর্মীও ছিলেন।

এমন দৃশ্যই দেখা গেল চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) আসনের উপ-নির্বাচনে ভোটের শুরুতে।

এর কিছুক্ষণ পর ওই কেন্দ্রের সামনে আসেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমদ। পরে দুই প্রার্থী কোলাকুলি করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোটারদের লাইন দেখে দুই প্রার্থী সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে তারা সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

এর পর পরই অভিযোগ উঠে নগরীর ষোলশহর হাসান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উপর হামলা।

পাশাপাশি বিএনপির প্রার্থীর পক্ষ থেকে আসতে থাকে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেয়া, একতরফা প্রভাব বিস্তারসহ নানা অভিযোগ।

এক পর্যায়ে সকাল ১১টার পর বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান ভোটের মাঠ ছেড়ে পরিদর্শন পরিহার করে নিজের বাসায় গিয়ে অবস্থান নেন।

আবু সুফিয়ান সিপ্লাসকে জানান, ভোটের কোন পরিবেশ নেই। তাই বাসায় ফিরে এসেছি।

ভোট বর্জনের ঘোষণা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দলের দায়িত্বশীলদের সাথে যোগযোগ করছি। তাদের মতামতের ভিত্তিতে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।