নিউজটি শেয়ার করুন

৯ বছরের সাজানো সংসার ভাঙলো অভিনেতা অপূর্বর

সিপ্লাস ডেস্ক: ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক জিয়াউল ফারুক অপূর্বর ৯ বছরের সংসার ভেঙ্গেছে। সম্প্রতি স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটেছে এই অভিনেতার। এই তথ্য নিশ্চিত করেছে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপূর্বর একাধিক ঘনিষ্ট সূত্র।

অপূর্বর এক ঘনিষ্ট সূত্র দাবি করেছেন, চলতি বছরের শুরুতে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে অপূর্ব- নাজিয়ার। গেলো কয়েক মাস ধরে তারা আলাদা থাকছেন।

এদিকে নিজেদের বিবাহ বিচ্ছেদের কথা স্বীকার করেছেন নাজিয়া হাসান অদিতি। তিনি জানিয়েছেন, হ্যাঁ, অপূর্বর সঙ্গে আমার ডিভোর্স হয়েছে। এর বেশি কিছুই বলতে চাইনা এখন।

শুধু তাই নয়, এরই মধ্যে নাজিয়া হাসান নিজের ফেসবুকে বিবাহ বিচ্ছেদের তথ্য হালনাগাদও করেছেন।

রবিবার (১৭ মে) বিকেলে সংসার ভাঙার খবর নিশ্চিত করেছেন নাজিয়া হাসান অদিতি। নাজিয়া হাসান অদিতি তার নিজস্ব ফেসবুকেও বিষয়টি জানান দিয়েছেন। রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসেও দেখা গেছে তিনি ‘ডিভোর্সড’ উল্লেখ করেছেন। এমনকি একটি স্ট্যাটাসে সবার উদ্দেশে তিনি লিখেন, ‘‘আমাকে ‘ভাবী’ ডাকা বন্ধ করুন সবাই!’’

ডিভোর্স বিষয়ে বিস্তারিত মুখ না খুললেও মুঠোফোনে অদিতি জানান, ‘অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, এটা সত্য।’

তবে কী কারণে ডিভোর্স হলো, কবে ডিভোর্স হলো তা নিয়ে কিছুই বলতে রাজি হননি নাজিয়া হাসান অদিতি। তার ভাষ্য ছিল এমন, ‘অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে মানুষের এটা জানা দরকার। জানালাম। এর বেশি কিছুই বলতে চাইনা। ব্যক্তিগত বিষয় ব্যক্তিগতই থাকুক।’

এ প্রসঙ্গে মন্তব্য জানতে অপূর্বর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তার সাড়া পাওয়া যায়নি।

২০১১ সালের ২১ ডিসেম্বর নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে দ্বিতীয় সংসার জীবন শুরু করেন অপূর্ব। তাদের একমাত্র সন্তান জায়ান ফারুক আয়াশ।

এর আগে অপূর্ব ২০১০ সালের ১৮ আগস্ট ভালোবেসে বিয়ে করে মডেল-অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে। অপূর্ব প্রভার প্রাক্তন প্রেমিক রাজিবের সাথে তার অবৈধ সম্পর্কের কথা জানতে পেরে ২০১১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি প্রভার সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ করেন।