নিউজটি শেয়ার করুন

সুবিধাবঞ্চিত ওয়ার্ডের সমস্যা দ্রুত সমাধান করা হবে: চসিক প্রশাসক সুজন

সিপ্লাস প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, নাগরিক সুবিধা বঞ্চিত ওয়ার্ডগুলোতে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হলেও অনেকগুলো দৃশ্যমান নয়। এগুলোর কোন সুফলও নগরবাসী পাচ্ছেনা।
এ সমস্ত ওয়ার্ডের উন্নয়নের জন্য বড় অংকের বরাদ্দ ও দীর্ঘ মেয়াদী প্রকল্প প্রয়োজন। সংক্ষিপ্ত মেয়াদে তা করা সম্ভব নয়। তবে যে সমস্যাগুলো প্রকট এবং এখনই সমাধান করা প্রয়োজন সেগুলো জরুরি ভিত্তিতে সম্পন্ন করা হবে।
তিনি বুধবার(১৮নভেম্বর) বিকেলে ১নং দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ডে নাগরিক দুর্ভোগ লাঘব এবং এর আশু সমাধানকল্পে স্থানীয় বিশিষ্ট ও গণম্যান্য ব্যক্তিদের সাথে ওয়ার্ড কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় একথা বলেন।
তিনি বলেন, দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ড সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হলেও এর পুরো চেহারা গ্রামীণ। প্রায় সব সড়কই কাঁচা। এ ওয়ার্ডের পাহাড়ী এলাকাতে পানির যেসব নালা ও প্রাকৃতিক ছড়া ছিল অবৈধ দখলদাররা সেসব ভরাট করে ফেলেছে। এ ছাড়া নালা-নর্দমা ও খালগুলোর অবস্থা শোচনীয়। ফলে জলাবদ্ধতা এখানকার নিত্য সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।
তিনি এ ওয়ার্ডে গুরুত্বপূর্ণ গ্রামীণ সড়ক ব্রীক সয়েলিং, সড়ক আলোকায়নের জন্য এলইডি লাইট স্থাপন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন ৪টি কন্টেইনার ডাস্টবিন বসানোর ব্যবস্থা করার ব্যাপারে উদ্যোগ নেয়া হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন।
তিনি বলেন, এ ওয়ার্ডের বিদ্যুৎ সমস্যার বিষয়ে পিডিবি’র সাথে কথা হয়েছে এবং নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনে চউকের মেঘা প্রকল্পের কাজ চলমান আছে। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা খাতে কর্পোরেশন কোন কর আদায় না করলেও পরিচ্ছন্ন বিভাগের জনবল এ ওয়ার্ডে কাজ করবে।
দখল হওয়া ছড়া ও খালসমূহ উদ্ধার করে পানি চলাচলের বাঁধা অপসারণ করা হবে বলে এসময় তিনি উল্লেখ করেন।
ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী শফিউল আজমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ মান্নান, সাবেক কাউন্সিলর জাফর আলম চৌধুরী, তৈফিক আহমদ চৌধুরী, আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি সামশুল আলম, এম.এ মালেক, আবদুর রহমান, রঞ্জিত চক্রবর্তী এবং সিটি কর্পোরেশন এর বিভিন্ন সেবা বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।