নিউজটি শেয়ার করুন

সীতাকুণ্ডে বাপের সম্পত্তী থেকে বঞ্চিত করায় বৃদ্ধা দুইবোনের অতিকষ্ঠে চলছে জীবন

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: ওয়াকফ এষ্টেটের ওয়ারিশদের অর্থ আত্মসাৎকারী ভাইপোর বিরুদ্ধে সংবাদ সন্মেলন করেছেন সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের সামছুন্নাহার (৬০)। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে উক্ত সংবাদ সন্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সামছুন্নাহারের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার মেয়ে পিংকি আক্তার।

শামসুন্নাহার অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার মহাদেবপুর মৌজার আর এস ১৭০০/০৩ নং খতিয়ানের আর এস ৭৯২ দাগের বি এস ১২২৩ দাগের ১০ শতক ভূমিসহ দোকান ঘর ১৯৮২ সালে রেজিষ্ট্রিকৃত ৩৮৭৭ নং ওয়াকফনামা দলিল মূলে ওয়াকফ আল- আওয়াত করে তিনি নিজে মোতাওয়াল্লী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ওয়াকফ সম্পত্তির দলিলে তিনি শর্ত রাখেন যে, মৃত্যুর পর তাহার ঔরষজাত বড় ছেলে শফিউল আলম এবং তৎ পুরুষানুক্রমে ভবিষ্যৎ বংশধরগণ উক্ত ওয়াকফ এস্টেট এর সম্পত্তি মোতোয়াল্লী থাকিয়া ওয়াকফকৃত সম্পত্তির আয় হ‌ইতে মসজিদের কার্য্যদি, শাসন, সংরক্ষণ ও তদারকরত: নির্ধারিত আয় দ্বারা মসজিদের খরচ প্রদান করিবেন এবং উক্ত ওয়াকফ সম্পত্তিতে থাকা দোকান গৃহের উপস্বত্ত্ব হ‌ইতে শতকরা দশভাগ মোতোয়াল্লীর বেতন বাদ দিয়ে বাকি আয়ের শতকরা ৪০ ভাগ মসজিদ বাবৎ,শতকরা ৫ ভাগ দান খয়রাত এবং শতকরা ৫৫ ভাগ মোতোওয়াল্লীর নিজ‌ ও অপরাপর আওলাদদের ভরণ পোষণের জন্য নির্ধারিত থাকিবে।

কিন্তু পিতা জীবিত অবস্থায় সব ঠিকঠাক ভাবে চললেও তার মৃত্যুর পর উক্ত ওয়াকফ সম্পত্তির উপর স্থিত দোকান ও যাবতীয় অংশ হতে বাৎসরিক আয় ১৩লক্ষ টাকার‌ও অধিক থেকে শফিউল আলমগং অন্যান্য ওয়ারিশদের প্রাপ্য না দিয়ে এককভাবে সম্পূর্ন টাকা আত্মসাৎ করছে। আমরা উক্ত ওয়াকফ সম্পত্তির মালিকের দুই কন্যা সামসুন্নাহার নিলু(৬০) ও জোহরা খাতুন (৭০) আমাদের ন্যায্য পাওনা চাইলে আমাদেরকে বিভিন্ন হুমকি-ধমকি দেয় এবং চট্টগ্রাম চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করে। বর্তমানে আমি উক্ত মামলায় আত্মসমর্পণপূর্বক জামিন এ রয়েছি। আমার বড় ভাই শফিউল আলম মারা যাওয়ার পরে তার ছেলে মোহাম্মদ আলী ও লিয়াকত আলী উক্ত ওয়াকফ এস্টেটের সমস্ত আয় থেকে আমাদের বঞ্চিত করে টাকা আত্মসাৎ করে আসছে। বর্তমানে আমার বড় বোন জোহরা খাতুন (৭০) কোন রকম জীবন যাপন করলেও আমি সামসুন্নাহার বৃদ্ধ বয়সে আমার প্রতিবন্ধী স্বামীকে নিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে অতিকষ্টে জীবন-যাপন করছি। অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলী ও লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানাচ্ছি।

সংবাদ সন্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জোহরা খাতুন, সুলতানা রাজিয়া, আবুল হাসেম, নুরুল হুদ, আবুল কাসেম, মোঃ ইয়াকুব জয়নাল আবেদীন প্রমূখ।