নিউজটি শেয়ার করুন

সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য না দেয়ার শর্তে মাহফিলে মামুনুল হক

মামুনুল হক। ফাইল ছবি

সিপ্লাস ডেস্ক: দুই শতাধিক যুবকের নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার উত্তর খুরমা ইউপির ইসলামী মহাসম্মেলনে পৌঁছেছেন মাওলানা মামুনুল হক।

নানা দোলাচলের পর সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক কোনো বক্তব্য না দেয়ার শর্তে তাকে মাহফিলে বক্তব্য দেয়ার অনুমতি দেয় প্রশাসন।

এদিকে শনিবার সকাল থেকে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে হেফাজত নেতা মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হকের আগমন লক্ষ্যে নিরাপত্তার স্বার্থে সিলেট থেকে ছাতক উপজেলার প্রবেশমুখে সুনামগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) সাহেব আলী পাঠানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়ে সন্দেহজনক গাড়িগুলো তল্লাশি করেন।

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবিরোধী আন্দোলনের নেতা মাওলানা মামুনুল হক উপজেলার জামিয়া ইসলামিয়া হাফিজিয়া দারুল কোরআন মৈশাপুর মাদ্রাসার ৪৩তম বার্ষিক ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন।

শনিবার ইসলামী মহাসম্মেলন শুরু হওয়ার আগে মৈশাপুর গ্রামে আয়োজনকারীদের সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে একটি জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এ বৈঠকে পুলিশ প্রশাসন সার্বিক বিষয়ে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে সরকারের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের উস্কানিমূলক বক্তব্য না দেয়ার শর্তে হেফাজত নেতা মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হককে আসার অনুমতি দেয়।

এদিকে মামুনুল হকের ওয়াজ শুনতে শিশু-নারী থেকে শুরু করে হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। বিশেষ করে সিলেট, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি জেলা-উপজেলা থেকে লোকজন তার মাহফিলে অংশগ্রহণ করেছেন।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসার মুহতামিম হাফিজ মাওলানা আব্দুস সামাদ জানান, এ অনুষ্ঠান সফল করার লক্ষ্যে দুই শতাধিক যুবককে নিয়ে নিরাপত্তার জন্য স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠন করা হয়। শনিবার বিকাল থেকে ইসলামী মহাসম্মেলনের বয়ান শুরু করেছেন দেশের খ্যাতনামা আল্লামারা।

এ ব্যাপারে থানার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, মাদ্রাসার মাহফিলে মাওলানা মামুনুল হক সরকারের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের উস্কানিমূলক বক্তব্য না দেয়ার শর্তে তাকে প্রশাসন থেকে অনুমতি দেয়া হয়। তবে আইনশৃঙ্খলা যেন কোনো ধরনের অবনতি না ঘটে সেদিকে প্রশাসন নজর রাখছে।