নিউজটি শেয়ার করুন

লোহাগাড়ায় গৃহবধূকে গাছে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

লোহাগাড়া প্রতিনিধি: লোহাগাড়ায় এক মাহিলাকে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সর্ব মহলে প্রতিবাদের ঝড় উঠে।

জানা যায়, গত ১৭ ফেব্রুয়ারী শিশুদের ঝগড়াঝাঁটিকে কেন্দ্র করে উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের পানত্রিশা এলাকার দিনমজুর মুহাম্মদ কামালের স্ত্রী ছালেহা বেগম (৩২)কে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করে একই এলাকার আবুল কাসেমের পুত্র মুহাম্মদ ফরিদুল আলম(৪৫), তার স্ত্রী রহিমা আকতার খুকি (৩২) ।

এ ঘটনায় সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারী) ভুক্তভোগী ছালেহা বেগমের স্বামী মুহাম্মদ কামাল উদ্দিন দু’জনকে আসামী করে লোহাগাড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে জাহাঙ্গীর আলম (Jahangir Alam) নামের একটি ফেসবুক আইডিতে নির্যাতনের ছবি সর্বপ্রথম পোস্ট করা হলে মূহুর্তেই ছবিটি ভাইরাল হয়। প্রতিবাদের ঝড় উঠে সর্বত্র। মামলা দায়েরের পর লোহাগাড়া থানা পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারে তৎপরতা শুরু করে।

এ ঘটনার সাথে জড়িত আবুল কাসেমের পুত্র মুহাম্মদ ফরিদুল আলম(৪৫), তার স্ত্রী রহিমা আকতার খুকি আকতার(৩২) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাকের হোসেন মাহমুদ জানান, বাচ্চাদের ঝগড়াঝাঁটি বিষয় নিয়ে ওই মহিলাকে গাছে বেধে নির্যাত করে বলে ভিকটিমের স্বামী আমাদেরকে জানিয়েছেন। এ ঘটনায় ওই মহিলার স্বামী কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে দু’জনকে আটক করে। এব্যাপারে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।