নিউজটি শেয়ার করুন

রাঙ্গুনিয়ায় সাইমুন সরওয়ার কমল এমপি: “কক্সবাজারে তথ্যমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা রাঙ্গুনিয়ার চাইতেও বেশি”

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি : রাঙ্গুনিয়ায় কক্সবাজার রামু-৩ এর এমপি সাইমুন সরওয়ার এমপি বলেছেন, রাঙ্গুনিয়ায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের যেই জনপ্রিয়তা রয়েছে, তার চেয়েও বেশি জনপ্রিয়তা রয়েছে আমাদের কক্সবাজারে। ড. হাছান মাহমুদ এখানে যতো ভোট পায়, তার চেয়েও বেশি ভোট আমার এলাকায় গেলে পাবেন। আমার এলাকায় উনার জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি।”

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের পদুয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত মরহুম এডভোকেট নুরুচ্ছাফা তালুকদার স্মৃতি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উপজেলা বঙ্গবন্ধু শিশুকিশোর মেলার আয়োজনে এবং সুখবিলাস ফিসারিজ এন্ড প্ল্যান্টেশনের সহযোগিতায় আয়োজিত টুর্নামেন্টের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম কবির তালুকদার।

উদ্বোধক ছিলেন উপজেলা শিশুকিশোর মেলার সদস্য আদেল সাদিক মাহমুদ।

সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র মো. শাহজাহান সিকদার, সুখবিলাস ফিসারিজ এন্ড প্ল্যান্টেশনের চেয়ারম্যান এরশাদ মাহমুদ, ইডেন ইংলিশ স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা খালেদ মাহমুদ, শিলক ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আকতার হোসেন খান, চট্টগ্রাম ফিন্ড হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশা, আরিফুল ইসলাম চৌধুরী, জাহেদুল আলম চৌধুরী আইয়ুব, সদস্য আবদুল হালিম তালুকদার, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি বদিউল খায়ের লিটন চৌধুরী, পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান বদি, টুর্নামেন্ট আয়োজন কমিটির আহবায়ক সাঈদ মোহাম্মদ রণি, যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুল ইসলাম রাসেল, মো. সোহেল প্রমুখ।

উদ্বোধনী খেলায় চট্টগ্রাম কর্ণফুলী ফুটবল একাডেমি পদুয়া ওয়ালিদ স্মৃতি সংসদকে টাইব্রেকারে পরাজিত করেন।

টুর্নামেন্টে মোট ১৬টি দল অংশগ্রহণ করে।

রাঙ্গুনিয়ার উন্নয়নের ব্যাপারে সাইমুন সরওয়ার কমল বলেন, ৭১-এ বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও এই রাঙ্গুনিয়া ছিল পরাধীন। সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীরা এখান থেকে ভোট নিয়ে সংসদে গিয়ে এখানকার খবর রাখেনি। এই রাঙ্গুনিয়াকে দ্বিতীয়বারের মতো স্বাধীন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এখন কাঁদা দিয়ে আর হাটতে হয় না। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে গেছে। তিনি উন্নয়নে পাল্টে দিয়েছেন রাঙ্গুনিয়ার দৃশ্যপট।

তিনি বলেন, আজকের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন বিভাগে পড়াশোনা করে একজন রসায়ন বিজ্ঞানি হয়েছেন। বেলজিয়ামের ব্রাসেলস বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি পরিবেশ বিজ্ঞানের উপর পড়াশোনা করে হয়েছেন পরিবেশ বিজ্ঞানি। একই বিশ্ববিদ্যালয় তিনি আন্তর্জাতিক রাজনীতি বিষয়ে পড়াশোনা করে আন্তর্জাতিক রাজনীতিবিদ বিজ্ঞানি হয়েছেন। ড. হাছান মাহমুদ একাধারে রসায়ন বিজ্ঞানি, পরিবেশ বিজ্ঞানি এবং আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক বিজ্ঞানি। এতগুলো জ্ঞানের উপাধি বাংলাদেশের আর কোন রাজনীতিবীদের কাছে আছে বলে আমার জানা নেই।

এডভোকেট নুরুচ্ছাফা তালুকদারের বিষয়ে তিনি বলেন, এডভোকেট নুরুচ্ছাফা তালুকদার ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট, ৬৬ এর ৬ দফা, ৭০ এর নির্বাচনে তিনি অগ্রনী ভূমিকা পালন করেছিলেন। ৭১ এর যুদ্ধে তিনি পদুয়ায় মুক্তিযুদ্ধাদের ট্রেনিং সেন্টার করেছিলেন। ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার হত্যার বিচার দাবীর আন্দোলনে ভূমিকা রেখেছিলেন। স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে শুধু তিনি নয়, তার সন্তান আজকের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদও পুলিশি আন্দোলনের মুখেও সংগ্রাম করে গিয়েছিলেন। নিজের সন্তানকে বড় নেতা হওয়ার জন্য বেশি পড়ালেখা করার পরামর্শ দিয়েছিলেন, সেই কথা আমি নিজের কানে শুনেছি।