নিউজটি শেয়ার করুন

ভোটার তালিকায় মৃত ২১ জীবিত ব্যক্তি

ছবি: সংগৃহীত

সিপ্লাস ডেস্ক: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ২১ নারী-পুরুষ জীবিত থাকার পরও ভোটার তালিকায় মৃত দেখানো হয়েছে। এতে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন কাজে হয়রানি হতে হয় তাদের। ভুক্তভোগীরা এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ধুনট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোকাদ্দেছ আলী বলেন, ২০১৯ সালে তালিকা হালনাগাদের সময় ২১ ভোটারের নামে মৃত হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তালিকা সঠিক করার কাজ শুরু হয়েছে; শিগগিরই তাদের ভোগান্তির অবসান হবে।

ধুনট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র ও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৯ সালে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হয়। ওই তালিকায় নির্বাচন কমিশনের ডেটাবেজে ধুনট পৌর এলাকার দুই জন, উপজেলা সদরের একজন, মথুরাপুরের তিন জন, কালেরপাড়ায় ছয় জন, নিমগাছীর দুই জন চৌকিবাড়ির পাঁচ জন, এলাঙ্গী ও ভান্ডারবাড়ির একজন করে ২১ জনকে মৃত দেখানো হয়। ফলে তাদের সরকারি সুযোগ-সুবিধা, ব্যাংক ঋণসহ অন্যান্য কাজে ভোগান্তি পোহাতে হয়।

মথুরাপুর গ্রামের সুশীলা রানী হালদার ২০০৯ সাল থেকে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত বয়স্কভাতা উত্তোলন করেছেন। কিন্তু ভোটার তালিকায় তাকে মৃত দেখানোর কারণে বয়স্ক ভাতার কার্ড বাতিল হয়ে যায়।

সুশীলা রানী জানান, তিনি জীবিত থাকার পরও ভোটার তালিকায় মৃত দেখানো হয়েছে। ফলে বয়স্ক ভাতার কার্ড বাতিল হয়েছে তার। এতে তিনি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কষ্টে দিনাতিপাত করছেন।

ধুনট উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল কাফী বলেন, ভোটার তালিকা সংশোধন করা হলে আবার ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবেন ভুক্তভোগীরা।

মোকাদ্দেছ আলী বলেন, ভুলবশত ২১ জীবিত ব্যক্তি মৃতদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। তাদের নাম সংশোধনের জন্য পাঠানো হয়েছে।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments