নিউজটি শেয়ার করুন

ফেনীর সোহেল হত্যা: কুমিল্লা থেকে ঘাতক স্ত্রী গ্রেফতার

সিপ্লাস প্রতিবেদক: ফেনীতে দুবাই প্রবাসী মোঃ সোহেল (৩৫)’ কে কুপিয়ে ও গলা কেটে নৃশংসভাবে হত্যায় দায়েরকৃত আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর মামলায় দুই শিশু সন্তান উদ্ধারসহ পলাতক আসামী স্ত্রী রোকেয়া আক্তার শিউলী (২৮)’ কে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-৭ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়,  শনিবার(২১ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে শিউলীকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম এলাকায় তার চাচার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। শিউলীর স্বীকারোক্তি মোতাবেক হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি ফেনীর নাজির রোড এলাকার চৌধুরী সুলতানা ভবন সংলগ্ন ডোবা থেকে উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার( ২০ আগস্ট) ফেনী জেলার সদর এলাকায় দুবাই প্রবাসী মোঃ সোহেল(৩৫) কে নৃশংসভাবে কুপিয়ে গলা কেটে হত্যা করা হয়। উক্ত ঘটনায় মৃতের মা নিরালা বেগম বাদী হয়ে মৃতের স্ত্রীর রোকেয়া আক্তার শিউলিকে আসামী করে ফেনী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন (যার মামলা নং-৩৭/৪৭২, তারিখ- ২০/০৮/২০২১ইং)। এ ঘটনা গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

র‌্যাবকে শিউলী জানায়, সোহেল ও তার স্ত্রী রোকেয়া আক্তার শিউলি তাদের দুই সন্তানকে নিয়ে ফেনী জেলার সদর থানা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকত। দেশে আসার পর থেকে সোহেল ও তার স্ত্রীর সাথে নিহত সোহেলের পরকীয়া সম্পর্কের নিয়ে প্রায়ই কথা কাটাকাটি হত। এরই জের ধরে গত শুক্রবার গভীর রাতে কথা কাটাকাটির এক সময়ে সোহেল মৌখিকভাবে তার স্ত্রী’কে তালাক দেয় এবং এতে তাদের দাম্পত্য কলহ চরম পর্যায়ে পৌঁছালে বেডে বসে থাকা অবস্থায় তার স্ত্রী পিছন দিক থেকে দা দিয়ে সোহেল কে কুপিয়ে গলা কেটে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

পরবর্তীতে শিউলি দারোয়ানকে তার বাবা মারা গেছে একথা বলে দুই সন্তান’কে নিয়ে পালিয়ে যায়।

হত্যাকান্ড সংঘটিত হওয়ার পরপরই আসামী রোকেয়া আক্তার শিউলী ট্রেনযোগে চট্টগ্রাম গিয়ে অবস্থান করে ও সকালে ফটিকছড়িতে পৌঁছে এবং সারাদিন ফটিকছড়িতে থেকে রাত আটটার সময় কুমিল্লার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। এবং রাতে কুমিল্লায় চাচার বাসায় আত্মগোপন করে।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments