নিউজটি শেয়ার করুন

ফটিকছড়িতে প্রকাশ্যে জুয়ার আসর, দৈনিক লাখ টাকার বাণিজ্য (ভিডিও)

আনোয়ার হোসেন ফরিদ, ফটিকছড়ি: ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট পৌর সদরে রাতদিন চলছে জমজমাট জুয়ার আসর। এ জুয়ার আসর ঘিরে দৈনিক লাখ টাকা লেনদেন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পাশাপাশি জুয়ার আসর ঘিরে সমানতালে চলছে মাদকের রমরমা বানিজ্য। অনৈতিক এ কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে রয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি চক্র।

অন্যদিকে, জুয়া খেলার নেশায় মত্ত হয়ে অনেকে যেমন সর্বশান্ত হচ্ছেন তেমনি এলাকায় দিনের পর দিন এমন কার্যক্রম চলতে থাকায় বিপথগামী হচ্ছে যুবসমাজ।

জানাগেছে, নাজিরহাট পৌর সদর কুতুব শাহ বাড়ির গাছ বাগানের ভিতরে পরিত্যাক্ত একটি দোকান ঘরে প্রতিদিন বসে জমজমাট জুয়ার আসর।

এছাড়াও দোকান সংলগ্ন বাগানে একাধিক স্পটে তিন থেকে চারটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে জুয়া খেলায় মেতে উঠে জুয়াড়িরা। দীর্ঘদিন ধরে পরিচালিত এ জুয়ার আসরে ফটিকছড়ি ছাড়াও পার্শ্ববর্তী রাউজান-হাটহাজারী, এমনকি চট্টগ্রাম শহরের সৌখিন জুয়াড়িরা নিয়মিত খেলতে আসেন।

উপজেলার মধ্যে জুয়া খেলার হটস্পট হিসেবে পরিচিত কুতুব শাহ বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, ভাঙ্গা ছোঁড়া একটি পরিত্যাক্ত দোকান ঘরে ১০/১২ জন যুবক মিলে জুয়া খেলছেন। গণমাধ্যমকর্মীদের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় তারা।

এসময় ঘরটির ভিতরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায় বেশ কিছু তাস ও মাদক সেবনের উপকরণ। এলাকাটির চিত্র চারিদিক থেকে এমন যে, বাইরে থকে বোঝার উপায় নেই এখানে দিনের বেলায় একাধিক জুয়ার আসর বসে।

জানাগেছে, প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতে জুয়াড়ীরা স্থানীয় গুল মোহাম্মদ মসজিদ পুকুরের পূর্ব পাড়, হৃদয় আবাসিক হোটেলের সরু গলিপথটি ব্যবহার করে থাকে।

অপরদিকে, এ জুয়ার আসর ঘিরে মদ, গাঁজা, ইয়াবার জমজমাট বিকিকিনি এলাকায় ওপেন সিক্রেট।

এ নিয়ে স্থানীয় বেশ কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা বলেন, এখানে জুয়া খেলার কারণে এলাকার যুবসমাজ বিপদগামী হচ্ছে। বার বার নিষেধ করা হলেও তারা কর্ণপাত করছেনা।

এ বিষয়ে নাজিরহাট পৌরসভার মেয়র এস.এম সিরাজ দৌল্লা বলেন প্রশানের সাথে কথা বলে জুয়ার আসরটি বন্ধ করতে উদ্যোগ গ্রহণ করা।

এ বিষয় জানতে চাইলে ফটিকছড়ি থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, মাদক-জুয়ার ব্যাপারে পুলিশ সব সময় জিরো টলারেন্স। নাজিরহাটের জুয়ার আসরটি বন্ধ করতে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

বিস্তারিত ভিডিওতে..

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments