নিউজটি শেয়ার করুন

নুরুল আবছার মিয়া ক্লিন ইমেজের, প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ 

স্পটলাইট: চসিক নির্বাচন, পাহাড়তলী ওয়ার্ড

সিপ্লাস প্রতিবেদক: আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে ৯নং উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নুরুল আবছার মিয়া অন্য প্রার্থীদের তুলনায় ক্লিন ইমেজ ও জনপ্রিয়তায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছেন।

মাঠ পর্যায়ে সিপ্লাসবিডিডটনেটের এক জরিপে বিষয়টি উঠে আসে।

পাহাড়তলীর বিভিন্ন এলাকায় নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের সাথে এই প্রতিবেদক কথা বললে নুরুল আবছার মিয়ার সম্পর্কে প্রায় সকলের মন্তব্য ছিলো পজিটিভ। বয়সে সবচে সিনিয়র এবং বনেদি পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে তার সবচে বড় বিষয়টি উঠে আসে ব্যক্তিগত ইমেজ এবং সরকার দলীয় পদে থাকা সত্ত্বেও কোন অনিয়মের সাথে জড়িত না থাকা।

তিনি পাহাড়তলী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর সাথে ভালো সম্পর্কের কারণে এলাকায় অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ডও করেছিলেন তিনি। ওয়ার্ডের প্রবীণ ও নবীনদের ভালবাসা নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন চসিক নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী সমাজ সেবক নুরুল আবছার মিয়া।

তিনি নির্বাচিত হলে- এলাকা মাদক মুক্ত, চাঁদাবাজি নিরসন, সড়ক উন্নয়ন, জলাবদ্ধতা নিরসনসহ যথার্থ নাগরিক সুবিধা দিতে চান এমন প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

কাউন্সিলর পদ-প্রার্থী নুরুল আবছার মিয়া’র নির্বাচনী মার্কা রেডিও।

কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ওই ওয়ার্ডের আব্দুল আলী নগরের নুরুল আমিন মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় একজন পরিচ্ছন্ন ব্যবসায়ী। তিনি মহামারি করোনাকালসহ সর্বদা নিজ ওয়ার্ড ছাড়াও পাহাড়তলী থানার বিভিন্ন এলাকার গরীব অসহায় মানুষদের নীরবে সাহায্য সহযোগিতা করে গেছেন। দিয়ে চলছেন নানান দান-অনুদান। সব মিলিয়ে নুরুল আবছার মিয়া এখন ওয়ার্ডের অসহায় মানুষদের কাছে একটি আস্থার নাম।

আজ সরেজমিনে ৯ নং ওয়ার্ডে গিয়ে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়, নুরুল আবছার মিয়া একজন সম্মানিত সমাজ সেবক ব্যক্তি। করোনাকালিন সময়েও তিনি নিজ উদ্যোগে দিনের পর দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে অসহায়, দুস্থ, করোনায় আক্রান্ত পরিবারসহ বিপদাপন্ন মানুষদের কাছে নানা পণ্য, খাবার, সুরক্ষা সামগ্রী ও অনেক সময় টাকাও পৌঁছে দিয়েছেন।

একজন ভোটার বলেন, ভোট দিবো প্রতীক নয়, প্রার্থী দেখে। কারণ এই এলাকায় তার প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের সম্পর্কে এলাকায় ভূমি দখল, চাদাঁবাজি, সন্ত্রাস ও নানা অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। যোগ্য প্রার্থী ও অতীত ইতিহাস যাচাই করে প্রার্থী নির্বাচন করবো। কোন ভূমিদস্যু, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীকে ভোট দিবো না। ক্লিন ইমেজের প্রার্থীকেই ভোট দিবো।

প্রার্থী নুরুল আবছার মিয়া’র একজন সমর্থক নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী হয়ে বলেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নুরুল আবছার মিয়া পাহাড়তলী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি। দল তাকে সমর্থন দিয়েছে। আমরা স্থানীয় নেতা কর্মীরা তার সাথে আছি। তিনি একজন যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তিত্ব। ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবে দলে পরিচিত।তাকে দলীয় সমর্থন দেওয়ার মধ্য দিয়ে আমরা ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা একজন আস্থাশীল প্রার্থী পেয়েছি।তিনি সবসময় এলাকার মানুষের পাশে থাকেন।

ঐ এলাকার একজন ভোটার জানান, নুরুল আবসার মিয়া একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবীদ, তার বিরুদ্ধে আমাদের কোন অভিযোগ নেই। তিনি অতীতেও কোন অপকর্মের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন না। আমরা একজন ক্লিন ইমেজের প্রার্থী পেয়েছি। তিনি একটি পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড গড়তে এবং যুব সমাজকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন মাদক মুক্ত সমাজ উপহার দিবেন এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

প্রার্থী নুরুল আবছার মিয়া জানান- মাদক ও সন্ত্রাস নির্মূল, সাধারন মানুষের অধিকার আদায়, নিজ ওয়ার্ডের উন্নয়ন, রাস্তা ঘাটের যথাযথ উন্নয়ন ও একটি পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড গড়তে এবং যুব সমাজকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন মাদক মুক্ত জীবন যাপনে ০৯ নং ওয়ার্ডকে গড়ে তুলতে সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।