নিউজটি শেয়ার করুন

জমজমাট প্রচারণায় চসিক নির্বাচনের মাঠ, প্রার্থীদের নানা প্রতিশ্রুতি

মো: মহিন উদ্দীন: চসিক নির্বাচন আর মাত্র ১৫ দিন বাকী। দিন যত ঘনীয়ে আসছে ততই চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে প্রচার প্রচারণা।

২৭ জানুয়ারী নির্বাচনকে সামনে রেখে সোমবার ( ১১ জানুয়ারী) সকাল থেকে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ বিএনপির প্রার্থীরা। তবে নির্বাচনের মাঠে ভোটারদের কাছে প্রার্থীদের নানা প্রতিশ্রুতিও দেয়া হচ্ছে। নগরীর উন্নয়নের ঘোষণা সকল প্রার্থীদের।

আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী মরহুম জননেতা এম এ আজিজের কবর জিয়ারতের পর গণসংযোগে নামে।

বিকেলে নগরীর মোহরা, চান্দগাঁও এবং পূর্ব ষোল শহর ওয়ার্ড়ে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে গণসংযোগ করেছেন। এসময় তিনি স্থানীয় জনসাধারণ ও ভোটারদরে সালাম ও শুভেচ্ছা জানান।

গণসংযোগকালে বিভিন্ন পথসভায় তিনি বলেন, জনকল্যানে কাজ করতে হলে জনগণরে কাছে যেতে হবে। অজুহাত, নালিশ, সন্ত্রাস, নৈরাজ্য সৃষ্টি অপরাজনীতি করে জনকল্যান হয় না। হত্যা, ষড়যন্ত্ররে মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে যে দলের জন্ম তারা মানুষকে কি দিতে পারে তা বাংলাদশে দেখেছে। তারা পারে কেবল ধোকা দিতে। তারা মানুষকে খাম্বা দিতে পারে, বিদ্যুৎ দেয়না। আর টাকা যায় তাদের বিদেশেরে একাউন্টে। তারা এতিমের নামে সাইনর্বোড লাগাতে পারে, এতিমের ঘরবাড়ী করেনা আর এতিমের টাকা যায় প্রসাধনীতে।

ভোটারদের লক্ষ্য করে তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ গণমানুষরে দল। গণমানুষরে কল্যানই আওয়ামী লীগের রাজনীতি। তাই আমি আপনাদের কাছে এসেছি। আপনাদের দোয়া নিতে বঙ্গবন্ধু কন্যা আমাকে আপনাদের সবার দায়িত্ব দিতে চান। তাই, নৌকা র্মাকায় ভোট চাইতে আপনাদরে কাছে পাঠিয়েছেনে। আমি আপনাদের সন্তান, বীর চট্টলার সন্তান। বীর চট্টলার ধূলোমাটি ঋণ আমি চট্টগ্রামের মানুষের সেবা করে এবং চট্টগ্রামকে অধিকতর সমৃদ্ধ করার মধ্য দিয়ে শোধ করতে চাই।

আওয়ামী প্রার্থী রেজাউল বলেন আওয়ামীলগ সরকার চট্টগ্রামে যেভাবে উন্নয়ন করেছে সেই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীকের বিকল্প নেই।

রেজাউল করিম চৌধুরীর সাথে গণ সংযোগে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগরে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, মহানগর আওয়ামী লীগরে কোষাধ্যক্ষ ও সিডিএর সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু তাহের, নুর মোহাম্মদ নুরু, এ্যাডভোকেট আইয়ুব খান, নিজাম উদ্দীন নিজু, মহিলা সম্পাদিকা ও কাউন্সিলর প্রার্থী জোবাইরা নার্গিস খান, ৫ নং মোহরা ওয়ার্ড় আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক নাজিম উদ্দীন চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক জসীম উদ্দীন, যুগ্ম আহ্বায়ক খালেদ হাসান খান মাসুক, কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আমিন মামুন, ৪নং ওয়ার্ড়ের কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুদ্দীন সাইফু, ৬নং ওয়ার্ড় আওয়ামী লীগের সভাপতি সামশুল আলম, সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর প্রার্থী আশরাফুল আলম প্রমুখ

অন্যদিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহাদাত হোসেনও বহদ্দারহাট থেকে গণসংযোগ শুরু করে চান্দগাঁও গিয়ে শেষ করেন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীর্ষের জয় হবে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন এলাকায় আমার পোস্টার ব্যানার ছিঁড়ে ফেলছেন। মাকিং করতে দিচ্ছে না এবং আমাদের প্রচারকর্মীদের মারধর করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

এ সময় নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর,চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি আবু সুফিয়ান, কাউন্সিলর প্রার্থী ইসকান্দর মির্জা,সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর জিন্নাতুন নেছা জিনুকসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।