নিউজটি শেয়ার করুন

জননেতা মরহুম আলহাজ্ব এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরীর ৪৯ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

গাজী যুবায়ের, রাউজান প্রতিনিধিঃ  পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের বিরোধী দলের নেতা বিশিষ্ট পার্লামেন্টারিয়ান জননেতা মরহুম আলহাজ্ব এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরীর ৪৯ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে চট্টগ্রামের রাউজানের গহিরা গ্রামে মরহুমের নিজ বাড়িতে ৯ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) সকাল সাড়ে দশটায় মরহুমের কবরস্থান সংলগ্ন জামে মসজিদে পবিত্র খতমে কুরআন ও মিলাদ মাহফিলসহ নানান কর্মসূচীর মাধ্যমে এই মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়।

মাহফিল শেষে যেয়ারতসহকারে মরহুমের কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মরহুমের পুত্র রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন মরহুমের পুত্র ফজলে শহীদ চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবদুল ওহাব, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন, সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, পৌরসভার মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ, পৌর প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার্দী সিকদার, ভুপেষ বড়ুয়া, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক রোকন উদ্দিন, সৈয়দ হোসেন কোম্পানি, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সহ সুমন দে, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আব্দুল সোহেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবীব চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক আজম রাশেদ, দপ্তর সম্পাদক তপন দে, অধ্যক্ষ আবু মোস্তাক আল কাদেরী, পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. রাসেল, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক রোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু সালেক, প্রবাসী ব্যবসায়ী শেখ নবী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিল্লুর রহমান মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন পিবলু, দক্ষিণ রাউজান ছাত্রলীগের সভাপতি জাহেদুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মো. সালাউদ্দিনসহ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরবৃন্দ, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। সাংসদের পরপরই পুষ্পার্ঘ্যের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাউজান উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভার মেয়র, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা, সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসহ সর্বমোট ১০৪টি সংগঠন।

এছাড়াও ডাবুয়া হিংগলা এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, কদলপুর ইসলামিয়া নতুন পাড়া এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, হলদিয়া সাজেদা কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, পূর্ব গুজরা সাতবাড়িয়া এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, গহিরা সাজেদা কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নোয়াজিষপুর সাজেদা কবির চৌধুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, হলদিয়া ইয়াছিন শাহ্‌ কলেজ, এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী হল, মরহুম এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী অডিটোরিয়াম হল, মাধ্যম ফতেহ নগর সাজেদা কবির চৌধুরী প্রাথমিক বিদ্যালয়, , রাউজানের হলদিয়া আমির হাটে সাজেদা কবির চৌধুরী পাঠাগার, মরহুম এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী প্রতিষ্ঠিত রাউজান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, রাউজান উপজেলা গহিরা শান্তির দ্বীপ কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি, গহিরা সাজেদা কবির কমিউনিটি ক্লিনিক, গহিরা সাজেদা কবির চৌধুরী ফোরকানিয়া মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পৃথক পৃথকভাবে নানান কর্মসূচীর মাধ্যমে দিনটি পালন করেন।

উল্লেখ্য, আলহাজ্ব এ.কে.এম. ফজলুল কবির চৌধুরী ১৯৭২ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ৫৬ বছর বয়সে ঢাকাস্থ বাস ভবনে ইন্তেকাল করেন। মরহুম চৌধুরী সাবেক পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের বিরোধী দলের নেতা এবং পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক আইন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন।

আলহাজ্ব এ কে এম ফজলুল কবির চৌধুরী ১৯১৭ সালের ১ নভেম্বর চট্টগ্রামের রাউজান থানার গহিরা গ্রামের পিতা- আলহাজ্ব খান বাহাদুর আবদুল জব্বার চৌধুরীর ও মাতৃকুল মধ্যযুগীয় মুসলিম মহিলা কবি রহিমুন্নেসার পৌত্রী বেগম ফাতেমা খাতুন চৌধুরানীর ঔরশে জন্ম গ্রহণ করেন।

তিনি চট্টগ্রাম পোর্ট- ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রেসিডেন্ট, মেরিন এন্ড মার্কেন্টাইল একাডেমীর গভর্নর ও চট্টগ্রাম ডিস্ট্রিক কাউন্সিলের কাউন্সিলর ছিলেন।

এছাড়া তিনি রাউজান গহিরা শান্তির দ্বীপের ও রাউজান কলেজের প্রতিষ্ঠাতা। আলহাজ্ব এ.কে.এম. ফজলুল কবির চৌধুরী সক্রিয় রাজনীতি ছাড়াও বহু জনহিতকর কাজ ও সেবামূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments