নিউজটি শেয়ার করুন

কাঁঠাল নিয়ে ঝগড়া: ফটিকছড়িতে প্রতিপক্ষের লাথিতে এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট পৌরসভায় কাঁঠাল নিয়ে ঝগড়ার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রাইমারি শিক্ষক মোঃ জাহেদ ও তার ভাগিনা রাকিবুল হাসান মানিকের সাথে ঝগড়ার এক পর্যায়ে মোঃ আইয়ুব (৬০)কে লাথি দিলে মাটিতে পড়ে মারা যান তিনি।

স্থানীয়রা আইয়ুবকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে যাবার পথে তার মৃত্যু হয়।

আজ শনিবার (২৩ মে) দুপুর ২ টায় নাজিরহাট পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের দায়েম চৌধুরীর বাড়িতে এঘটনা ঘটে।

নিহত আইয়ুব ঐ এলাকায় মৃত হারুন চৌধুরীর পুত্র। তিনি ৩ সন্তানের জনক।

অভিযুক্ত মাষ্টার জাহেদ একই এলাকার আবু বকরের ছেলে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মসজিদে ইমাম মোহাম্মদ আলী বলেন, গাছের কাঁঠাল নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে জাহেদ আইয়ুবকে এলোপাতাড়ি মেরে আহত করে। এসময় আইয়ুবের ছেলেরা নিহত আইয়ুবকে উদ্ধার করে নাজিরহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাওয়ার পথে তিনি মারা যান।

নিহত আইয়ুবের ভাই আবদুল্লাহ বলেন, দুপুরে নামাজ পড়তে গেলে মসজিদের কাঁঠাল বেচাকে কেনাকে কেন্দ্র করে জাহেদ, তার ভাগিনা মানিক,জাহেদের বড় ভাই আলমগীর, তৌহিদ মিলে আমার ভাইকে বেধড়ক মারে। পরে মানিকের লাথির আঘাতে আমার ভাইয়ের মৃত্যু হয়। এই ঘটনার আমরা সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

ঘটনায় অভিযুক্ত জাহেদের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে, ফটিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ বাবুল আক্তার বলেন, ঘটনাস্থলে থেকে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে ।

লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।