নিউজটি শেয়ার করুন

কচুরিপানায় আটকা, কাপ্তাই লেক থেকে ৮ পর্যটক উদ্ধার

জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দিয়ে উদ্ধার হন তারা

কচুরিপানায় আটকা, কাপ্তাই লেক থেকে ৮ পর্যটক উদ্ধার

সিপ্লাস প্রতিবেদক: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর পার্বত্য জেলা রাঙামাটি ভ্রমণে এসেছিলেন আট পর্যটক। কাপ্তাই লেকে ঘুরতে গিয়ে বিপাকে পড়লে মঙ্গবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দিয়ে উদ্ধার হন তারা।

আটকে পড়া পর্যটকরা হলেন- এমরান হোসেন, আশরাফ শোভন, এস এম রিয়াদ উদ্দীন, রেহান উদ্দীন, মো. সাকিব নাবিল, রিপন মাহমুদ, শেখ ফরিদ, মো. সনওয়ার সাকিল। তাদের প্রত্যেকের বাড়ি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটিতে এসে সদর থেকে বোট ভাড়া করে শুভলং ঝর্ণার উদ্দেশ্য রওনা দেয় ৮ সদস্যের ওই পর্যটক দলটি। কাপ্তাই লেকের অনিন্দ্য সৌন্দর্য উপভোগ করতে করতে শুভলং ঝর্ণায় পৌঁছায় তারা। শুভলং ঝর্ণার অপরুপ সৌন্দর্য উপভোগ করে নিজ গন্তব্যে পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে দুপুর ১২ টায় শুভলং থেকে সদরের উদ্দেশ্য রওনা করে পর্যটকরা। এরই মধ্যে কাপ্তাই লেকে সুবিশাল কচুরিপানার একটি ঝাঁক পর্যটকদের বোটকে আটকে ধরে। শত চেষ্টা করেও বোটচালক এই কচুরিপানার ঝাঁক অতিক্রম করতে পারে না।

বোট চালকের প্রাণপণ চেষ্টার একপর্যায়ে বোটের পাখা নষ্ট হয়ে যায়। এরপর, বোটচালক ও আটকে পড়া পর্যটকরা নিজেদের উদ্ধারে কচুরিপানা পরিষ্কার করতে প্রাণপণ চেষ্টা করতে থাকে। দুপুর ১২ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত কচুরিপানা পরিষ্কার করে নিজেদের উদ্ধারের চেষ্টা করে পর্যটক দল। দীর্ঘভ্রমণ করে রাঙ্গামাটিতে এসে সারাদিন কিছু না খাওয়ার ফলে সবারই ক্রান্তি চলে আসে এবং সবাই শারীরিক ও মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে যায়। উপায়ন্তর না দেখে, বাংলাদেশ পুলিশের জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল দেয় তাদেরই একজন।

৯৯৯ থেকে রাঙামাটি জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুম কল পেয়ে পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাচ্ছের হোসেনের নির্দেশনায় জারুলছড়ি ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যরা উদ্ধার অভিযানে যায়। দীর্ঘ ১ ঘন্টা কচুরিপানা পরিষ্কার করে পর্যটকদলের কাছে পৌঁছে পুলিশ সদস্যরা। পর্যটকদের উদ্ধার করে পুলিশ সদস্যরা নিজেদের খাওয়ার বিস্কুট, পানি প্রভৃতি দিয়ে পর্যটকদের ক্ষুধা নিবারণ করে।

উদ্ধার হওয়া পর্যটক এস.এম. রিয়াদ জিলানী গণমাধ্যমে বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ এরকম তড়িৎ গতিতে ব্যবস্থা নিতে পারে, তার সাক্ষী হতে পেরে নিজেদেরকে ধন্য মনে করছি। চারদিকে যখন ঘোর অন্ধকার দেখতে ছিলাম তখনই আলোর পথ দেখিয়ে নিজেদের নতুন জীবন দান করলো বাংলাদেশ পুলিশ। তাই বাংলাদেশ পুলিশ তথা রাঙামাটি জেলা পুলিশের প্রতি আমরা চিরকৃতজ্ঞ।

এদিকে, রাঙামাটি কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কবির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পর্যটকরা শুভলং থেকে রাঙামাটি আসার পথে কাপ্তাই হ্রদে কচুরিপানায় আটকে পড়েছিল। তিনি বলেন আমরা ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে তাদের উদ্ধার করি।

কচুরিপানায় আটকা, কাপ্তাই লেক থেকে ৮ পর্যটক উদ্ধার

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments