নিউজটি শেয়ার করুন

কক্সবাজার রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটি গঠিত

কক্সবাজার ব্যুরো: বাংলাদেশীদের সাথে রোহিঙ্গাদের অবাধ সংমিশ্রণ বন্ধ; স্থানীয় বাসিন্দাদের ঝুঁকি কমানো, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিরোধী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের অপতৎপরতারোধ, পুরাতন রোহিঙ্গাদের তালিকা ও তাদের চিহ্নিতকরণ, সরকারি বেসরকারী সুযোগ সুবিধা বন্ধ করা, যেসব রোহিঙ্গা জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্ট আদায় করেছে তা বাতিল করাসহ নানা বিষয়ে ব্যাপক জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে গঠিত হয়েছে কক্সবাজার রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটি।

মোট ৫৪ সদস্যবিশিষ্ট কার্যকরী কমিটিতে সাংবাদিক মাহাবুবুর রহমান সভাপতি, পর্যটন উদ্যোক্তা হোসাইন ইসলাম বাহাদুর সাধারণ সম্পাদক ও সাংবাদিক ইমাম খাইরকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে।

এছাড়া ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি উপদেষ্টা কমিটিও ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানে রয়েছেন- কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও কক্সবাজার পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড মধ্যম সমাজ কমিটির সভাপতি এডভোকেট তোফায়েল আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক এডভোকেট তাপস রক্ষিত, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য এডভোকেট আয়াছুর রহমান, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি এডভোকেট দীপংকর বড়ুয়া পিন্টু, কলামিস্ট এডভোকেট মুহাম্মদ আবু ছিদ্দিক ওসমানী এবং জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ তারেক।

শনিবার (২১আগষ্ট) সন্ধ্যায় শহরের একটি অভিজাত হোটেল সম্মেলন কক্ষে পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডের সমাজপতি ও নেতৃত্ব স্থানীয় ব্যক্তিদের সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে কমিটি ঘোষণা দেন এডভোকেট তাপস রক্ষিত।

কমিটির অন্যান্য পদে যারা রয়েছেন: সহ-সভাপতি- নুরুল আজিম সওদাগর (পাহাড়তলী), আমির হোসেন (টেকপাড়া), মনজুর আলম সিকদার (ঘোনারপাড়া), কুতুবউদ্দিন (নুনিয়ারছড়া), এম এ মঞ্জুর (কলাতলী), রুস্তম আলী চৌধুরী (এসএমপাড়া), রুহুল আমিন সিকদার (আলীর জাহাল), রাশেদুল ইসলাম ডালিম (লাইট হাউজ পাড়া)। সহ-সাধারণ সম্পাদক- মাস্টার জসিম উদ্দিন (পাহাড়তলী), শামসুল ইসলাম কেলু, শাহেদ আলী (লাইট হাউসপাড়া)। সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, শরিফুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক মোঃ নেজাম উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক মিজানুর করিম, দপ্তর সম্পাদক কানন বিশ্বাস, যোগাযোগ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক রাশেদুল হক রাশেদ (নুরপাড়া)।

কার্যনির্বাহী সদস্যরা হলেন-সাংবাদিক ফরহাদ ইকবাল (বৈদ্যঘোনা), আব্দুল হক নুরী (পাহড়তলী), ক্রিড়াবিদ মোঃ শেখ সেলিম (পাহাড়তলী), সাংবাদিক এম. বেদারুল আলম (পিএমখালী), কায়সার মাস্টার (কুতুবদিয়া পাড়া), শাহাদাৎ হোসেন মুন্না (কুতুবদিয়াপাড়া), জিল্লুল করিম (কুতুবদিয়াপাড়া), শফি উল্লাহ শেখর (নতুন বাহারছড়া), প্রভাষক তৌহিদুর রহমান (কক্সবাজার সিটি কলেজ), হাজী আব্দুর রহিম (টেকপাড়া), শাহাবুদ্দিন (নুনিয়ারছড়া), নজরুল ইসলাম (টেকপাড়া), এম জাহেদ উল্লাহ (ব্যাংকার টেকপাড়া), আবুল হাসেম (টেকপাড়া), খোরশেদ আলম (বাহারছড়া), মেজবাহ উদ্দিন কবির (মোহাজের পাড়া), মোর্শেদুল হক চৌধুরী (কলাতলী), শওকত আলম (ঘোনার পাড়া), মোঃ মোস্তফা (উত্তর নুনিয়ারছড়া), মাস্টার সেলিম (সাহিত্যিকা পল্লী), এম. জাবের (শিক্ষক), মোহাম্মদ রফিক (পাহাড়তলী) মোহাম্মদ রফিক (টেকপাড়া), ওমর ফারুক সোহেল (পাহাড়তলী), কামাল উদ্দিন (নুনিয়ারছড়া), রফিকুল ইসলাম (ঘোনারপাড়া), আব্দুর শুক্কুর রুবেল (পাহাড়তলী), শাহনেওয়াজ, মোহাম্মদ ইউসুফ (পাহড়তলী), মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, আব্দুল জব্বার, হারাধন রুদ্র সুজয় ( ঘোনারপাড়া), সাগর পাল সাজু ঘোনারপাড়া), মোহাম্মদ নুরুল আলম, রোকন উদ্দিন আল মামুন, এহসান আল কুতুবী ও এডভোকেট রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ (পাহাড়তলী)।

উল্লেখ্য, প্রয়োজন বিবেচনায় কমিটিতে আরো লোকজন সংযোজন হতে পারে।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments