নিউজটি শেয়ার করুন

কক্সবাজারের খুরুশকুল ছনখোলা সড়কে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ

কক্সবাজার প্রতিনিধি: এখনো সংস্কার হয়নি কক্সবাজারের খুরুশকুল ছোনখোলা সড়ক। এতে প্রতিনিয়ত চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্থানীয় জনগনের। বর্তমানে কক্সবাজার প্রধান সড়ক সহ বিভিন্ন সড়ক বন্ধ থাকার কারণে বিকল্প রাস্তা হিসাবে অনেকে এই সড়ক ব্যবহার করতে চাইলেও অতিরিক্ত ভাঙ্গাচুড়ার কারনে রাস্তাটি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। তাই দ্রুত খুরুশকুল ছনখোলা সড়কটি মেরামতের দাবী জানিয়েছেন সর্বস্তরের জনগন।

জানা গেছে ২০০৪ সালের দিকে বিকল্প সড়ক হিসাবে ইট দিয়ে তৈরি করা হয়েছিল খুরুশকুল কুলিয়াপাড়ার মাথা থেকে পিএমখালী ইউনিয়নের ছনখোলা বাজার সড়ক। এ সড়কটি নির্মাণ হওয়ার পর থেকে এই দুই এলাকা ছাড়াও কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন এলাকার মানুষ প্রতিনিয়ত খুরুশকুল হয়ে খুব দ্রুত বাংলাবাজার, চেরাংঘাটা হয়ে প্রধান সড়ক পর্যন্ত আসা যাওয়া করতে পারতো। তবে প্রায় ৭/৮ বছর ধরে রাস্তাটির করুণ দশা হওয়ার কারণে এই রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে ছনখোলা এলাকার আলম বলেন, ছনখোলা হয়ে খুরুশকুল রাস্তাটির কারণে আমরা আধাঘন্টার মধ্যে কক্সবাজার শহরে যাতায়ত করতে পারি। তবে বর্তমানে সড়কটি মারাত্মক বেহাল দশার কারণে রাস্তাটি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। এখন শুস্ক মৌসুমে কিছুটা ব্যবহার করতে পারলেও বর্ষা মৌসুমে কোন ভাবেই সম্ভব না।

স্থানীয় আরো বেশ কয়েকজন জানান, গত ২ বছর আগে আমরা রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য উপজেলা প্রকৌশল অফিসে চাঁদা দিতে এলাকার মানুষজন থেকে টাকা তুলেছিলাম। সেটার সংবাদ স্থানীয় দৈনিকে প্রকাশ হওয়ার পরে কক্সবাজার সদর রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল নিজে এসে ছনখোলা বাজারে জনসভা করে সেই রাস্তা দ্রুত সংস্কার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু দুই বছর পার হয়ে গেলেও রাস্তাটি এখনো সংস্কার হয়নি।

এদিকে খুরুশকুল কুলিয়াপাড়া এলাকার নজরুল সহ অনেকে বলেন, বর্তমানে কক্সবাজার শহরের সব রাস্তা বন্ধ তাই জরুরী প্রয়োজনে আমরা সেই রাস্তাটি ব্যবহার করি। কিন্তু রাস্তাটিতে কোন মতে গাড়ী চলাচল করা সম্ভব না। তাই রান্তাটি দ্রুত সংস্কার জরুরী। যে কোন ভাবে বর্ষার আগে রাস্তাটি সংস্কার করা দরকার।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর উপজেলা প্রকৌশল অফিসের সহকারী প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন বলেন, খুরুশকুল ছনখোলা সড়ক পুন: নির্মাণের বিষয়ে একটি প্রাক্কলন তৈরি করা হয়েছিল পরে যে কোন কারণেই হউক সেটা আর আলোর মুখ দেখেনি।