নিউজটি শেয়ার করুন

“ওমেন্স অফ ইন্সপারেশন অ্যাওয়ার্ড” প্রদান করে ১৩ নারীকে সম্মানিত করলো জেসিআই বাংলাদেশ

সিপ্লাস ডেস্ক: আর্ন্তজাতিক নারী দিবসে “ওমেন্স অফ ইন্সপারেশন অ্যাওয়ার্ড”- ২০২১ এর মাধ্যমে ১৩ জন নারীকে সম্মানিত করেছে জেসিআই বাংলাদেশ।

ঢাকার একটি আন্তর্জাতিক পাঁচ তারকা হোটেলে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জেসিআই বাংলাদেশ শনিবার (২৭মার্চ) “ওমেন্স অফ ইন্সপারেশন অ্যাওয়ার্ড-২০২১” প্রদান করে।

“ওমেন ইন লিডারশীপ: কোভিড-১৯ বিশ্বে সমান ভবিষ্যত অর্জন”- ইউএন উইমেনের থিম হচ্ছে ২০২১ সালের আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রতিপাদ্য।  এই থিমের উপর ভিত্তি করে জেসিআই বাংলাদেশ প্রোগ্রামটি আয়োজন করে এবং বাংলাদেশের ১৩ জন নারী লিডারকে ওমেন্স অফ ইন্সপারেশন অ্যাওয়ার্ডটি প্রদানের মাধ্যমে সম্মানিত করে।

এই অ্যাওয়ার্ডটি সে সব অসাধারণ নারীদের মাঝে তুলে ধরা হয়েছে যারা লিডার হিসেবে নিজেদের পরিচয় তুলে ধরেছেন। তারা শুধু নিজেদের পরিচয় তুলে ধরেনি অন্যদের মাঝে অনুপ্রেরণা সৃষ্টি করেছেন এবং তাদের মাঝে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে সক্ষম হয়েছেন।

অ্যাওয়ার্ডগুলো বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে ভাগ করা হয়েছে। যেমনঃ উদ্যোক্তা, ব্যাংকিং, আইনী বিষয়, ব্যবসায় উদ্ভাবন, মেডিকেল উদ্ভাবন, প্রতিরক্ষা, শিল্প ও সংস্কৃতি, ফ্যাশন এবং বিউটি, মিডিয়া, কর্পোরেট লিডারশীপ ইত্যাদি।

যে সব সফল নারীদের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে তারা হলেন- মাসুমা রহমান নাবিলা, নাহিতা নিশমিন, নাসিমা আক্তার নিশা, প্রিমা নাজিয়া আন্দালিব, ফারহানা রফিক উজ্জামান, অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা (জুথি), ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম, রুখমিলা জামান, ডঃ সেনজুতি সাহা, সানজিদা হক আরেফিন লুনা, শামীমা নাসরিন, টিনা এফ জাবীন কর্নেল ও ডঃ জেবুন নাহার।

ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে জাতীয় সংসদের স্পিকার  উপস্থিত ছিলেন ডঃ শিরীন শারমিন চৌধুরী, এমপি। তিনি  বক্তব্য দিয়ে কলকে অনুপ্রাণিত করেন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন মুন্সীগঞ্জ -২ আসনের সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, এমপি, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের স্পেশাল এসিস্ট্যান্ট টু দা প্রাইম মিনিস্টার ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ এবং মার্কিন দূতাবাসের  ডেপুটি চিফ অফ মিশন জো অ্যান ওয়াগনার।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেসিআই বাংলাদেশের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট নিয়াজ মোর্শেদ এলিট।

“ওমেন্স অফ ইন্সপারেশন অ্যাওয়ার্ড-২০২১” এর চীফ কো-অর্ডিনেটর হলেন তাসমিনা আহমেদ শ্রাবনী, অনুষ্ঠানের আহবায়ক ইসমাত জাহান লিসা এবং সহ-আহবায়ক মিঃ জিয়াউল হক।

অনুষ্ঠানে জেসিআই বাংলাদেশের ন্যাশনাল অফিসারস, লোকাল প্রেসিডেন্ট, সদস্যবৃন্দ, বিজনেস লিডারস, কূটনীতিক, সরকারী অফিসিয়াল এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটিতে প্ল্যাটিনাম স্পনসর দারাজ এবং গোল্ড স্পনসর হিসেবে বিএনও, ওয়ারাহ, ওকোড এবং এআইএস যুক্ত ছিলেন।

উল্লেখ্য, জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল (জেসিআই) ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী উদ্যমী তরুণদের একটি সংগঠন। এটি একটি অলাভজনক বিশ্বব্যাপী সংস্থা। যারা তাদের সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রভাব তৈরি করতে নিযুক্ত এবং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

জেসিআই বাংলাদেশের বর্তমানে প্রায় এক হাজার সদস্যসহ ১৮ টি লোকাল চ্যাপ্টার কাজ করছে।