নিউজটি শেয়ার করুন

ঈদগাঁও-ইসলামপুরে ১০ বছর ধরে বসত‌ভিটা জবর দখল!

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড খাঁন ঘোনা এলাকায় বৃ‌দ্ধে‌র বসত ভিটা জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে।

অভিযোগে জানা গেছে বিগত এক দশক ধরে ইউ‌নিয়‌নের খাঁন ঘোনার বৃদ্ধ ‌মোঃ হো‌সে‌নের পুত্র প্রবাসী নুরুল আলম, ছৈয়দ নুর না‌মের দু’ভাই বা‌ড়ি করার জন‌্য ৯৬ কড়া জমি ক্রয় করেন একই এলাকার মৌলানা আব্দুল গ‌নি ও আবু বক্ক‌রের ওয়া‌রিশ‌ থেকে। ক্রয়কৃত জমির উত্তর পাশে সীমানা নি‌য়ে বি‌রোধ সৃ‌ষ্টি ক‌রে জোর পূর্বক দখল ক‌রেছেন একই গ্রামের আব্দু শুক্কু‌রের পুত্র ফি‌রোজ ও শাহাজান।

অন‌্যদি‌কে বসতভিটার উত্তর-পুর্ব পাশে ৩০ কড়া জমি ভুয়া খ‌তিয়ান সৃজন ক‌রে জোর পূবর্ক ঘেরাবেড়া দিয়ে দখলে রয়েছে মোহাম্মদ ইসলামের পুত্র জুবা‌ইরুল ইসলাম ও ‌মোঃ জুয়েল। বসতভিটার মালিক ছৈয়দ নুরের মতে আদাল‌তে তা‌দের দখলকৃত জমির খ‌তিয়ান‌টি ভুয়া প্রমা‌নিত হ‌য়েছে। এমনকি আমার পিতা মোঃ হো‌সে‌নের না‌মে নতুনভা‌বে খ‌তিয়ান সৃজন হ‌লেও প্রায় ৪০ কড়া বসতভিটার জমি দীর্ঘ ১০ বছর ধরে জোর পূর্বক দখলে রেখেছে অভিযুক্তরা। বিগত ক’মাস ধরে বি‌ভিন্ন দফে বিচার শা‌লি‌সের বৈঠক করা হ‌লেও দাখলবাজরা নানা তালবাহানা করে ভয় ভী‌তি দে‌খি‌য়ে শালিশী বৈঠকে বসেন না। এমনকি এ ঘটনায় ঈদগাঁও থানায় অ‌ভি‌যোগ করা হ‌লেও অধ্যবদি কোন সুরাহা মেলেনি। অ‌ভি‌যুক্তরা বিভিন্ন মাধ‌্যমে শালিশি বৈঠক ও প্রশাসনকে ম‌্যানেজ করে সময় ক্ষেপন করেন।

জানতে চাইলে ঐ ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার কবির আহমদ ও সমাজ‌ সেবক হারুনুর র‌শিদ কয়েক দফে বৈঠকের কথা স্বীকার করে বলেন বাদী-বিবাদীর অসহযোগিতার কারনে মুলত শালিশী বৈঠক হয়নি। তারপরও স্থানীয়ভা‌বে বৈঠ‌কের মাধ‌্যমে সমাধান করার জন‌্য চেষ্টা চালিয়ে যাব।

অভিযুক্ত ফিরোজ আহমদ বলেন, বৈঠকে বসতে আমাদের কোন বাঁধা নেই। উভয় পক্ষের কাগজপত্র পর্যালোচনা করে শালিশকাররা যে সমাধান দিবেন তা আমরা মাথা পেতে নেব। ঈদগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হালিম অভিযোগ দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে তদন্তের মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করা হবে বলে জানান।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments