নিউজটি শেয়ার করুন

আফগান শরণার্থীদের উগান্ডা পাঠাচ্ছে আমেরিকা

ছবি: রয়টার্স।

সিপ্লাস ডেস্ক: আফগানিস্তান তালেবানের দখলে যাবার পর সেখান থেকে  আফগান নাগরিকদের বহনকারী একটি ফ্লাইট বুধবার ভোরে উগান্ডায় অবতরণ করেছে।উগান্ডার সরকারী কর্মকর্তারা বলেছেন তাদের ঐ দেশে অস্থায়ী আশ্রয় দেওয়া হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পুরুষ, মহিলা ও শিশুসহ ৫১ জন আফগানকে নিয়ে একটি চার্টার ফ্লাইট এন্টিবের লেকসাইড শহরে অবতরণ করেছে।এরপর বাসে করে তাদের হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তান থেকে আরও অনেক উদ্ধারকৃতদের পরবর্তী সময়ে উগান্ডায় নিয়ে যাওয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে।বলা হয়েছে, “ঝুঁকিপূর্ণ” আফগান নাগরিক এবং অন্যান্য যারা যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বব্যাপী অন্যান্য গন্তব্যে যাবার চেষ্টা করছে তাদের সাময়িকভাবে আবাসন দেয়ার জন্য অনুরোধ করেছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার যা উগান্ডা সরকার অনুসরণ করছে।

মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে,” শরণার্থী এবং বিপদে পড়া ব্যক্তিদের গ্রহণের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক উদ্বেগের বিষয়ে একটি দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করার উগান্ডা সরকারের নীতি অভাবগ্রস্তদের জন্য আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করেছে।”

খবরে বলা হয়েছে যে উগান্ডা প্রায় ২,০০০ শরণার্থীকে নিতে রাজি হয়েছে কিন্তু এটি নিশ্চিত করা হয়নি। উগান্ডা বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী জনসংখ্যা কে আশ্রয় দিয়েছে- জাতিসংঘের মতে, প্রধানত প্রতিবেশী দক্ষিণ সুদান এবং গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গো থেকে প্রায় ১৫ লক্ষ শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে।

মন্ত্রী বলেছে যে “উগান্ডার নাগরিক যারা কাবুলের বিমানবন্দরে প্রবেশ করতে না পারায় প্রথম ফ্লাইটটিতে দেশে ফিরতে পারেননি তাদের দেশে নেওয়ার ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।

প্রতিবেশী রুয়ান্ডা মঙ্গলবার বলেছে যে আফগানিস্তানে মেয়েদের একমাত্র বোর্ডিং স্কুল থেকে কয়েক ডজন স্কুলছাত্রী এবং কর্মীদের নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে তারা।

তালিবান ১৫ই আগস্ট কাবুল দখল করার পর থেকে অনেক আফগান দেশ ছেড়ে পালানোর জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে, তালেবানের অধীনে  থাকতে অনেকেই অনিচ্ছুক।

কামপালায় যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস উগান্ডাকে “এই উদারতা ও আতিথেয়তার” জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছে। খবর: ভয়েস অব আমেরিকার।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments